বাংলা সিরিয়াল

বঙ্গ সেরা ধারাবাহিক মিঠাই তে দহি ভাঙার এপিসোড কেন? বাঙালি ধারাবাহিকে বাঙালি সংস্কৃতি দেখে ক্ষুব্ধ হয়েছেন বয়স্ক দর্শকরা!

জি বাংলার জনপ্রিয় ধারাবাহিক মিঠাই। একাধিকবার বঙ্গ সেরা হওয়ার সাথে সাথে এই ধারাবাহিকের আলাদা একটি ফ্যান বেস রয়েছে, রয়েছে আলাদা জনপ্রিয়তা। তবে জি বাংলা ধারাবাহিক মানে তার মধ্যে একটা নিজস্বতা বরাবরই চোখে পড়ে তা হলো জি বাংলার বেশিরভাগ ধারাবাহিকেই মোটামুটি বাঙালিয়ানা ফুটে ওঠে, অন্যদিকে স্টার জলসার বেশিরভাগ ধারাবাহিকেই সম্পর্কের নানাবিধ জটিলতা একটু পরকীয়া গোছের গল্প ও ক্রাইম থ্রিলার টাইপের গল্প দেখানো হয়। জি বাংলায় যে ধরনের বাঙালি আনা টাইপের গল্প দেখানো হয় সেই জায়গায় একটু অবাঙালি গোছের কিছু থাকলে মানুষ তো আপত্তি তুলবেই।

ঠিক এমনটাই হয়েছে সম্প্রতি আর তাও হয়েছে জনপ্রিয় ধারাবাহিক মিঠাই কে কেন্দ্র করে। সম্প্রতি মিঠাই ধারাবাহিকে জন্মাষ্টমী উৎসব পালন হচ্ছে ধুমধাম করে। কিন্তু এই জন্মাষ্টমীর মধ্যে একটি অবাঙালি প্রথা দেখানো হয়েছে যা সচরাচর হিন্দি ধারাবাহিকে চোখে পড়ে। তা হল মটকা ফোড়া অর্থাৎ হাড্ডি ভাঙ্গা। অবাঙালিদের জন্মাষ্টমীর সময় সবাই দহির হান্ডি ভাঙে। এই দহি ভাঙাতে দেখা যায় পাড়ার মধ্যে কোন একটা উঁচু জায়গায় একটা দহির হাড়ি ঝোলানো হয় আর কোনো একজন অনেকের কাঁধের উপর দিয়ে উঠে সেই মটকাটা ভাঙে। মিঠাই তে এই এপিসোড দেখানোর পরই সোশ্যাল মিডিয়ায় দুই দলের সৃষ্টি হয়েছে।

একদলের বক্তব্য অবাঙ্গালীদের সমস্ত অনুষ্ঠান যদি বাঙালি অনুষ্ঠানে দেখানো হয়, তাহলে তাদের সাজ পোশাক থেকে শুরু করে খাওয়া দাওয়া সমস্ত কিছুই দেখাক বাঙালি মিষ্টি দেখানোর দরকার নেই। বাঙালি ধারাবাহিকের মধ্যে হিন্দি ধারাবাহিকের অনুকরণ দেখতে ভালো লাগে না। প্রবীন দর্শকরা এই বিষয়টা মেনে নিতে পারছেন না।

আর এক দলের বক্তব্য আবার সম্পূর্ণ অন্য, সোশ্যাল মিডিয়ার মধ্যে ইয়ং জেনারেশন এর বক্তব্য, যুগ বদলেছে তাই একটু মেলবন্ধন যদি দেখানো হয় দু-একটা আলাদা সংস্কৃতির তাহলে বিশেষ কিছু অপমান হয় না। বাঙালিয়ানার মধ্যেও একটু অবাঙালিয়ানা ঢুকালে খারাপ কিছু হয় না।

Back to top button