বাংলা সিরিয়াল

‘‘মিঠাইয়ের বুকের ডানদিকে গুলি লেগেছে, তাহলে হাতে support bag কেন?হেটার্সরা ট্রোল করলেও এটাই আসলে বাস্তবে ডাক্তাররা করেন!সিরিয়ালে অবাস্তবিক জিনিস দেখতে গিয়ে বাস্তবায়ন দেখে ট্রোল করছে’বলছেন নেটিজেনদের একাংশ

জি বাংলার জনপ্রিয় ধারাবাহিক মিঠাই। একটানা মাসের পর পর অসংখ্য বার বঙ্গ সেরা হ‌ওয়া এই জনপ্রিয় ধারাবাহিক কিছুদিন আগে বঙ্গসেরার আসন কয়েকসপ্তাহ হারালেও আবার রিকোভারি করে নিজেদের পুরোনো আসন ছিনিয়ে নিয়ে পুনরায় বঙ্গসেরা হয়েছে। রুদ্র নিপার বিয়ের ট্র্যাকে এই ধারাবাহিক বঙ্গ সেরার আসন ফিরে পেয়েছে আবার। এরপর ধারাবাহিকে দেখানো হয় যে ওমি আগারওয়াল জেল থেকে পালিয়ে মোদক পরিবারে আসে একটা নতুন ছক কষে। তারপর রুদ্র নিপার গ্র্যান্ড রিসেপশনে সেখানে হাজির হয় ওমি। এরপর সিডের দিকে তাক করে গুলি চালায় ওমি।

দূর থেকে ওমিকে দেখে গুলি থেকে সিদ্ধার্থকে বাঁচাতে ছুটে আসে মিঠাই। তার গায়ে গুলি লাগে হাসপাতালে ভর্তি হয় সে। সম্প্রতি তার ঞ্জান ফিরেছে ও সে বাড়ি ফিরে এসেছে। তবে হাসপাতালের পর্বে কোনো অযৌক্তিক বিষয় দেখায় নি মিঠাই টিম, বরং ভীষণ ভাবে বাস্তবায়ন করেছে তারা চিকিৎসা বিদ্যাকে।

নেটিজেনরা বলছেন, অবাস্তব জিনিস সিরিয়ালে দেখে অভ্যস্ত কিছু মানুষ তাই মিঠাইকে ট্রোল করছেন তারা বুঝতে পারেন না এটাই আসলে বাস্তবে হয়। এক ভক্ত এই প্রসঙ্গে লিখেছেন,“ একটা জিনিস খেয়াল করে খুব ভালো লাগলো কতটা বাস্তবিক মাটিতে পা রেখে লেখিকা ম্যাডাম আমাদের “মিঠাই” উপহার দেয়, তা আজ আরো একবার প্রমাণিত। গল্প অনুযায়ী দেখানো হয়েছে, মিঠাইয়ের বুকের ডানদিকে গুলি লেগেছে, তাই ওই জায়গাটায় bandage দেওয়াটা খুবই স্বাভাবিক,কিন্তু মিঠাইয়ের হাত তো আর ভাঙেনি,তাহলে হাতে ঐরকম support bag কেন? আসলে normally সব artery-vein একে অপরের সাথে connected। হৃদয় থেকেই তো রক্ত সর্বদেহে ছড়িয়ে যায়। তাই হাতে টান লাগলে,ক্ষতর জায়গা থেকে bleeding হতে পারে,তাই হাত টা ঐভাবে আটকে রাখা হয় বাস্তবে। সেটা সিরিয়ালে না দেখলেও চলতো, কিন্তু এটা তো “মিঠাই” বাস্তবতায় ভরপুর তাই এইসব সূক্ষ্ম জিনিস ও খুব নিপুন সহকারে প্রদর্শিত হয় (যদিও haters এই নিয়েও রব তুলেছে,,, কিন্তু মিঠাই “নিজের মতন unique….)”

Back to top button