বাংলা সিরিয়াল

বঙ্গ সেরা মিঠাই ধারাবাহিকের ফ্যানরাও ইউনিক! ওমির ভালো দিকের কথা মনে করে খলনায়কের মৃত্যুতেও কেঁদে বুক চাপড়াচ্ছেন এক মিঠাই ফ্যান!

জি বাংলার জনপ্রিয় ধারাবাহিক মিঠাই। এই ধারাবাহিকে বিগত কয়েকদিন ধরে টানটান রুদ্ধশ্বাস ভরা এপিসোড হচ্ছে। মোদক পরিবারে এমন একটি পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়েছে যা পরিবারের সদস্যদের সাথে সাথে প্রত্যেকটি দর্শক কেউ আতঙ্কে ভরিয়ে রেখেছে। এই ধারাবাহিকে দেখানো হয়েছে যে ওমি মৃত্যুর নাটক করে পালিয়ে গিয়ে ছদ্মবেশে মোদক পরিবারেই আশ্রয় নিয়েছে।

তারপর রাতের অন্ধকারে গোটা বাড়িতে বোম সেট করে এবং সিসিটিভি লাগিয়ে মনোহরা থেকে অনেক দূরে অবস্থান করে মনোহরার কার্যবিধি খেয়াল রেখেছে। মোদক পরিবারের প্রত্যেকটি সদস্য যখন জানতে পেরেছে বোম লাগানো আছে তখন তারা ভয়ে আতঙ্কে প্রত্যেকটা মুহূর্ত কাটাতে শুরু করার সঙ্গে সঙ্গে এই বিপদের মুহূর্ত থেকে কিভাবে বাঁচা যায় তার চেষ্টা করেছে। বোম স্কোয়াডকে খবর দিয়ে বাড়ির বাইরে থেকে সিদ্ধার্থ জানবার চেষ্টা করেছে কিভাবে বোমটা ডিক্টেভেট করা যায়। রাতুল পুলিশদেরকে নিয়ে চলে এসেছে আর পিঙ্কি বাইরে থেকেই তার দাদাকে কাতর অনুনয় করেছে যে যেন সে এমনটা না করে। এরপর ধারাবাহিকে দেখানো হয় যে সমস্ত ভিলেনদের মতোই ওমির পরিণতি হয়েছে মৃত্যু। কিন্তু অন্যান্য ধারাবাহিকে ভিলেনের মৃত্যুতে যেখানে আনন্দ হয় সেখানে মিঠাই ফ্যানরা কষ্ট পেয়েছে ওমির মৃত্যুতে।

সোশ্যাল মিডিয়ায় একজন ফ্যান লিখেছেন, “জানিনা অন্য সিরিয়ালে ভিলেনের এই পতনে কারো এত আঘাত লেগেছে কীনা! মিঠাই ফ্যানবেজ সবদিক দিয়ে এত ইউনিক কেন ভাই? হয়তো ওমির ক্যারেক্টারটা পুরোপুরি ভিলেন না হয়ে গ্রেশ্যাডের হওয়াতে আমাদের এতো খারাপ লাগছে। মৃত্যু না দিয়ে যাবজ্জীবন জেল দিলেও পারতেন শ্বাশতী ম্যাম… আপনারাই বলুন না, নিজের বাবা-বোন যদি আপনাকে আপনার চরম প্রতিদ্বন্দ্বীর সাথে তুলনা করে, ওর মতন হতে বলে, ওর হাতে আপনার পরিবারের সবকিছু তুলে দেই আপনার কেমন লাগবে?”

Back to top button