বাংলা সিরিয়াল

‘বয়স বাড়লেও স্বামীগুলো যেন দেবুদার মতো থেকে যায়’! ৩০ ৩ম বিবাহ বার্ষিকীতে লক্ষ্মীকে চমকে দেওয়ার মতো হট গিফট দিতে দেখে বলছেন নেটিজেনরা

কিছুদিন আগেই লক্ষ্মী কাকিমার সুপারস্টারের একটি প্রোমো দেখিয়েছে। যেখানে দেখানো হচ্ছে যে লক্ষীদি আর তার দেবুদার ৩০ তম বিবাহ বার্ষিকী পালন করা হচ্ছে। বাড়ি শুদ্ধ সবাই খুব হৈচৈ করছে। দেবুদা নিজে লক্ষ্মীদের মাথায় সিঁদুর পরিয়ে দিচ্ছে। দুজনেই খুব সুন্দর ভাবে সেজেছে। এমন সময় লক্ষ্মীর সামনে বেরিয়ে আসে আসল সত্য! লক্ষী জানতে পারে তার ছেলে দুলালের সাথে আসলে হংসিনির কোনদিন বিয়েই হয়নি! পুরো ঘটনাটাই মিথ্যে।

নিজের বিবাহ বার্ষিকীর দিন যখন লক্ষ্মী খুব খুশি তখন দুলালকে বলা হয় যেহেতু সে মন্দিরে পালিয়ে গিয়ে বিয়ে করেছে তাই সকলের সামনে সে যেন আবার হংসিনীর সিঁথিতে সিঁদুর দিয়ে দেয়। এই ঘটনায় খুব ঘাবড়ে যায় দুলাল কারণ সে তো জানে পুরো ঘটনাটাই মিথ্যে সাজানো আদপে তাদের বিয়ে হয়নি। তাই দুলালের হাত কাঁপতে থাকে আর সিঁদুর ভর্তি কোটো হাত থেকে পড়ে যায়। এমন সময় হংসিনির বাবা সেখানে উপস্থিত হয় আর বলে, ও সিঁদুর পরাবে কী করে ওদের তো আসলে বিয়েই হয় নি। এই এপিসোডে কী হবে তা জানতে টানটান উত্তেজনার সৃষ্টি হয়েছে। প্রোমো এপিসোড নিয়ে টানটান উত্তেজনা সৃষ্টি হল এখনো এপিসোড টি দেখায় নি ধারাবাহিকে।

সম্প্রতি লক্ষ্মী কাকিমা সুপারস্টার এ বিবাহ বার্ষিকীর বিষয়টা উঠে এসেছে। জি বাংলা তরফ থেকে কিছুক্ষণ আগে একটি ভিডিও শেয়ার করা হয়েছে যেখানে দেখা যাচ্ছে যে, গিফট প্যাকেট দেখে খুব রেগে গিয়ে লক্ষ্মী গিফট প্যাক খুলছে আর ভাবছে দেবুদাকে কে কী দিলো আর দেবু দা তাকে ক্রমগত মানা করছে। খুলতে মানা করছে। এরপর লক্ষ্মীদি যখন পুরো গিফট প্যাকটা খুলে ফেলে তখন দেখে সেখানে তার জন্য একটি গিফট রাখা আছে। একটি ছোট্ট চিরকুটে লেখা আছে, ৩০ তম শুভ বিবাহ বার্ষিকীর উপহার। একটি বেগুনি কালারের নাইট ড্রেস দেবুদা উপহার দিয়েছে লক্ষ্মীকে। তারপর লক্ষ্মীকে দেবুদা বলে সেই ড্রেসটা পরে আসতে লক্ষী সেটা পরে আসে। লক্ষীকে নাইট ড্রেস পরে দেখে মুগ্ধ হয়ে যায় দেবুদা বলে কি সুন্দর লাগছে তোমাকে লক্ষ্মী। এই ভিডিওটি দেখে দর্শকরা ও মুগ্ধ হয়ে গিয়েছেন তাদের বক্তব্য বয়স বেড়ে গেলেও ভালোবাসাগুলো যেন এরকমই থেকে যায় সেটাই তো সবাই চায়।

Back to top button