বাংলা সিরিয়াল

বিপদ থেকে মুক্তি পেতেই, ফাঁকা রাস্তায় শাড়ি ছেড়ে শর্ট ওয়েস্টার্ন ড্রেসে ধরা দিলেন অভিনেত্রী ঐন্দ্রিলা সাহা, ভাইরাল ভিডিও

বর্তমানে দর্শকদের মধ্যে ধারাবাহিক গুলির চাহিদা বিপুল। বিনোদন জগতের একটি বড় অংশ হয়ে উঠেছে এই ধারাবাহিক। নিত্যদিনের বিনোদনের জন্য এই ধারাবাহিক গুলি শ্রেষ্ঠ। আর বর্তমানে বাংলা ধারাবাহিক গুলির মধ্যে দর্শকদের মাঝে অন্যতম জনপ্রিয় একটি ধারাবাহিক হলো জি বাংলার মিঠাই। মিঠাই দেখেন না এমন মানুষ হয়তো খুব কমই পাওয়া যাবে। মিঠাই ভক্তদের সংখ্যাও প্রচুর। অন্যান্য ধারাবাহিকের থেকে এই ধারাবাহিকের ভক্ত সংখ্যা যেন একটু বেশি। ধারাবাহিকের প্রতিটি চরিত্রকে দর্শক আপন করে নিয়েছে খুব তাড়াতাড়ি। এছাড়াও এই ধারাবাহিকের প্রতিটি চরিত্রই সমানভাবে গুরুত্বপূর্ণ ধারাবাহিকের জন্য। এক একটি চরিত্র জন্য এক একটি চরিত্রের পরিপূরক। কোনো একটি চরিত্রকে যদি দর্শক দুই একদিন না দেখেন তাহলে তাদের মন খারাপ হয়ে যায়।

বিগত দেড় বছর ধরে জি বাংলার পর্দা কাঁপিয়ে চলেছে মিঠাই ধারাবাহিক। সিদ্ধার্থ এবং মিঠাইয়ের পাশাপাশি ধারাবাহিকের নিপা, স্যানডি, শ্রীতমা সব কটি চরিত্রই দর্শকের ভীষণই পছন্দের। কিছুদিন আগেই ধারাবাহিকে নিপার সঙ্গে সিদ্ধার্থের বন্ধু রুদ্রর বিয়ে হয়েছে। যদিও রুদ্র এবং নিপার বিয়েটাও নাটকীয় ভাবেই হয়েছে। মোদক পরিবারের সব ভাইবোনদের বিয়ের মতোই রুদ্র নিপার বিয়েতেও ছিল অনেক রকম টুইস্ট। নানান রকম বাধা-বিপত্তি পেরিয়ে অবশেষে সিদ্ধার্থ এবং মিঠাইয়ের চেষ্টায় হল্লা পার্টির সকলে সাহস করে নিপার এবং রুদ্রর চার হাত এক করেছে। যদিও পরে সবটাই স্বাভাবিক হয়ে গিয়েছে। কিন্তু বর্তমানে ধারাবাহিকের জমজমাট পর্ব দেখানো হচ্ছে। মোদক পরিবারের সকল সদস্যকে বোম ব্লাস্টে মেরে ফেলতে চাইছে ওমি আওয়ারওয়াল। কিন্তু অবশেষে গোপাল রক্ষা করেছে সকলকে।

অন্যদিকে সোশ্যাল মিডিয়ার ভাইরাল হল নিপা অর্থাৎ অভিনেত্রী ঐন্দ্রিলা সাহার একটি ইনস্টাগ্রাম রিল ভিডিও। ভিডিওটিতে অভিনেত্রীকে একটি ওয়েস্টার্ন ড্রেসে দেখা গিয়েছে। কালো সাদা শর্ট ওয়েস্টার্ন ড্রেসে ঐন্দ্রিলা কে দারুন লাগছিল। পায়ে ছিল একজোড়া হিল জুতো, খোলা চুলে বাংলার সিনেমার জনপ্রিয় গানের সঙ্গে জোশ ভিডিওর হয়ে নাচ করেছেন অভিনেত্রী। ইতিমধ্যেই ওই ভিডিও ৩৬ হাজারেরও বেশি মানুষ পছন্দ করেছেন এবং অসংখ্য মানুষ কমেন্ট বক্সে ঐন্দ্রিলার প্রশংসা করেছেন।

 

View this post on Instagram

 

A post shared by Oindrila Saha (@oindrilasaha21)

Back to top button