বাংলা সিরিয়াল

নোলকের বহুরূপী-র মুখোশ পরে নোলকের কাছে এলো অরিন্দম! এইবার কি সে নোলকের দুষ্টুমির ফাঁদে পড়ে স্বীকার করবে ভালোবাসার কথা?

স্টার জলসার জনপ্রিয় ধারাবাহিক ‘গোধূলি আলাপ’ এ দেখা যায় অসমবয়সী নোলক আর অরিন্দম এর কাহিনী। পরিস্থিতির চাপে পড়ে বিয়ে হয় নোলক অরিন্দমের। এরপর বিভিন্ন পরিস্থিতির মধ্য দিয়ে যেতে যেতে একে অপরকে ভালোবেসে ফেলে তারা, কিন্তু ভালবাসলেও অরিন্দম মুখ ফুটে নিজের ভালোবাসার কথা বলতে নারাজ। অন্যদিকে নোলক দুষ্টু ফন্দি দিয়েছে যেভাবেই হোক সে অরিন্দমের মুখের থেকে সত্যি কথা বার করেই ছাড়বে।

নোলক সাবালিকা এই বয়সের প্রমাণ জোগাড় করবার জন্য নোলক আর অরিন্দম নোলকদের গ্রামে যায়, এরপর সেখানে রোহিনীর গুন্ডারানো লোকের মাথায় বাড়ি মারে এবং নোলককে আহত অবস্থায় হাসপাতালে ভর্তি করে অরিন্দম তারপর দীর্ঘ সময় বাদে নোলকের জ্ঞান ফেরে। নোলকের যখন জ্ঞান ফিরে তখন সে শুনতে পায় যে হাসপাতালের ডাক্তারের কাছে সে নোলককে পরিচয় দিচ্ছে নিজের এক আত্মীয়া বলে কিন্তু অন্যদিকে ফর্ম ফিলাপের সময় সে নিজেকে নোলকের স্বামী বলে দাবি করেছিলো! নোলক বুঝতে পারে দুনিয়ার সবাইকে উকিলবাবু সত্যিটা বলতে পারলেও নোলকের সামনে সে সত্যিটা স্বীকার করতে লজ্জা পায়! তাই সত্যি স্বীকার করানোর জন্য নোলক নাটক করতে থাকে যে তার স্মৃতিশক্তি হারিয়ে গেছে এবং সে অরিন্দমকে চিনতে পারছে না!

বিপদে পড়ে অরিন্দম বলেই ফেলে যে সেই নোলকের স্বামী কিন্তু নোলক এত সহজে মানবে কেন? নোলক বলে কোন প্রমাণ আছে কি? যতক্ষণ না প্রমাণ দিতে পারছেন ততক্ষণ মুখ দেখাবেন না! আপনি একটা পাজি লোক!

এরপর দেখা যায় নোলকের বহুরূপীর মুখোশ মুখে দিয়ে অরিন্দম নোলকের সাথে দেখা করতে এসেছে তাকে তার বাড়িতে নিয়ে যাওয়ার কথা বলতে! নোলক বলে আপনার কথা মানে তো সেই বর বউয়ের কথা শুরু করবেন! অরিন্দম বলে না, আমি আর ওই কথা বলবো না! আসলে অরিন্দম তো নোলককে তার বাড়িতে নিয়ে যাওয়ার জন্য রাজি করাতে এসেছে! এরপর ধারাবাহিক কোন দিকে এগোবে নোলকের দুষ্টু বুদ্ধিতে অরিন্দম কি স্বীকার করবে সে আসলে নোলককে ভালোবাসে? জানতে হলে অবশ্যই দেখতে হবে জন্মাষ্টমী জমজমাট পর্ব গোধূলি আলাপ রাত সাড়ে দশটায়।

Back to top button