বাংলা সিরিয়াল

‘খড়কুটো ধারাবাহিকের টাইটেল ট্রাক‌ই পুরো গল্পটাকে বলে দেয়! গানটা ভালো করে শুনলে বোঝা যায় খড়কুটো এখানে গুনগুন!’ সিরিয়ালের গানের মধ্যেই ধারাবাহিকের পুরো গল্প লুকিয়ে আছে বলে দাবি করলেন এক দর্শক দিলেন ব্যাখ্যাও!

একটি ধারাবাহিক যখন‌ কোন একটি চ্যানেলে শুরু হয় তখন ধারাবাহিক টির নামকরণ অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ হয়। একটি ধারাবাহিকের নামকরণই তার পরিচয়। এখন নামকরণ বিভিন্নভাবে হতে পারে কিছু কিছু ধারাবাহিকে দেখা যায় নায়িকার নামে নামকরণ হয়ে গেলো, যেমন জি বাংলার জনপ্রিয় ধারাবাহিক ‘মিঠাই’, কিছু কিছু ধারাবাহিকে আবার দেখা যায় নায়ক নায়িকার নাম নিয়ে ধারাবাহিকের নাম হল যেমন ‘সাহেবের চিঠি’। কিছু কিছু সময় দেখা যায় ধারাবাহিকের নামটা ভীষণ ব্যঞ্জনধর্মী হলো- যেমন এই পথ যদি না শেষ হয়, ধুলোকণা, পুণ্যি পুকুর,কড়ি খেলা ইত্যাদি।

এখন কোন ধারাবাহিকে যখন নায়িকা বা নায়কের নাম দিয়ে ধারাবাহিকটি শুরু হয় তখন ধারাবাহিকটি খুব সহজ হয় বোঝানো। কিন্তু যখন ধারাবাহিকের নাম কিছু অন্য দেওয়া হয় তখন ব্যঞ্জনার সেই বিষয়টি ধারাবাহিকের মধ্যে বুঝিয়ে দিতে হয় সেটা ডায়লগ দিয়ে হোক বা সেই পরিস্থিতি ক্রিয়েট করে হোক। স্টার জলসার জনপ্রিয় একটি ধারাবাহিক খড়কুটো এই ধারাবাহিকের সম্প্রতি দেখানো হচ্ছে যে ধারাবাহিকের নায়িকা গুনগুনের মৃত্যু হয়েছে। নায়িকার মৃত্যু হওয়ার পর ধারাবাহিকের কিছু দর্শক বুঝতে পেরেছেন এই খড়কুটো ধারাবাহিকের গানটা পুরোটাই ধারাবাহিকের পুরো গল্পটিকে বলে দিচ্ছে। টাইটেল ট্রাকটা কেউ ভালো মতো শুনলেই বুঝতে পারবে ধারাবাহিকের শেষে কি হবে!

একজন নেটিজেন যেমন সোশ্যাল মিডিয়ায় লিখেছেন,“খুব একান্তভাবে মনোযোগ দিয়ে খড়ের লিরিক্স টা আর পুরো সিরিয়াল দেখলে বুঝতে পারবেন -খড়কুটো শব্দটা পুরোটাই ধারন করে গুনগুন। স্রোতে ভেসে খড়কুটো এসেছিলো আবার ভেসে চলে গেছে আর মাঝখানে আকড়ে ধরে বেঁচে থাকার চেষ্টা।আর গুনুর আরেক নাম ও কিন্তু স্রোতোসিনি। গুনগুন আসলো আবার চলে গেলো আর মাঝখানে মুখার্জি পরিবার আঁকড়ে ধরে বাঁচলো। আমার মনে হয় খড়কুটোই প্রথম ধারাবাহিক যার নামকরন আর লিরিক্স দুটোই মিলে গেলো পুরো সিরিয়ালে সার্থক নামকরন।”

Back to top button