বাংলা সিরিয়াল

ঝগড়া করতে করতেই অর্জুন সাঁজির প্রেমে পড়েছে! ভুল বিয়ে থেকে বেরিয়ে এসে জীবনে এগিয়ে যাওয়ার বার্তা দিচ্ছে খড়কুটোর সাঁজি খুশি দর্শক!

স্টার জলসায় জনপ্রিয় ধারাবাহিক ‘খড়কুটো’। এই ধারাবাহিকে বরাবর যৌথ পরিবারের গল্প, সেই পরিবারের বিভিন্ন সদস্যদের নানান সমস্যার কথা এবং সমাধানের জন্য গুনগুনের মাথা থেকে বেরোনো অদ্ভুত আইডিয়া ইত্যাদি দেখানো হয়েছে। গুনগুন আর সৌজন্যর সম্পর্ক, রসায়ন ও দর্শককে আকর্ষিত করেছে যে কারণে বহু সময় পর‌ও এই ধারাবাহিক দর্শকের আকর্ষণের কেন্দ্রবিন্দু হয়ে রয়ে গিয়েছেন। সম্প্রতি এই ধারাবাহিকে দেখানো হচ্ছে যে জেঠাইয়ের মেয়ে চিনির শ্বশুরবাড়িতে ভীষন অশান্তি হচ্ছে। তার শাশুড়ি এবং পরিবারের সবাই তার সাথে খারাপ ব্যবহার করছে এবং চিনি সিদ্ধান্ত নিয়েছে সে চাকরি করে নিজের পায়ে দাঁড়াবে।

এই চিনির দাম্পত্য জীবনের সমস্যার সাথে সাথেই গুনগুনের আর এক ননদ সাঁজির ট্র্যাক তুলে ধরা হয়েছে। পটকার মেয়ে সাঁজি, অল্প বয়সে একটি ভুল ছেলেকে ভালবেসে বিয়ে করেছিল, বিয়ের অল্প সময়ের মধ্যেই সেই ছেলে এবং তার শ্বশুরবাড়ি যে জালিয়াত, তার বোঝা যায় এবং পুলিশের সাহায্য নিয়ে কোনোভাবে তাদের খপ্পর থেকে বাঁচে সাঁজি। এইবার দেখানো হচ্ছে অতীতের খারাপ স্মৃতি ভুলে সাঁজি নতুন জীবনে এগিয়ে যেতে চাইছে। অতীতের তিক্ত অভিজ্ঞতা ভুলবার জন্য একটি কলেজে চাকরি নিয়েছে সে।

তবে কলেজে গিয়েও তাকে অপদস্ত হতে হয়েছে। বিভিন্ন কলিগ থেকে শুরু করে, তার কলেজের এইচ‌ওডি অর্জুন তাকে কারণে অকারণে অপদস্ত করতে শুরু করে। মানসিকভাবে সম্পূর্ণ বিধ্বস্ত হয়ে এই পরিস্থিতিতে সাঁজি চাকরি ছেড়ে দেয়। কিন্তু ঝগড়া করলেও সাঁজির প্রতি অন্তরে একটি দূর্বলতা তৈরি হয় অর্জুনের তাই সাঁজি কলেজ না এলে তাকে দেখতে না পেয়ে ছুটতে ছুটতে তার বাড়ি পর্যন্ত চলে যায় অর্জুন, সে মুখে যতই বলুক যে, সাঁজি কলেজ ছেড়ে গেলে কলেজের ও তার বদনাম হবে বলেই সে চায়না সাজি কলেজ ছাড়ুক, আসল ব্যাপারটা যে পুরোপুরি অন্য তা আর কেউ না ধরুক কলেজের প্রিন্সিপাল তা ধরে ফেলেছেন এবং তিনি সেই বিষয়ে কথা বলছেন সাঁজির সাথে। এই পুরো বিষয়টির ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় ইতিমধ্যেই ভাইরাল হয়ে গেছে। অনেক দর্শক জানিয়েছেন যে, এই সাজি অর্জুনের ট্র্যাকটি খুব ভালো, এটি সমাজকে ইতি বাচক বার্তা দেয়,একটি ভুল বিয়ে খারাপ মানুষের থেকে বেরিয়ে এসে অবশ্যই নতুনভাবে জীবন শুরু করা উচিত।

 

View this post on Instagram

 

A post shared by Sougun lovers 💕 (@sougun_love_22)

Back to top button