বাংলা সিরিয়াল

বাবাকে হারিয়ে ভেঙে পড়লো গুনগুন! সৌজন্যর সঙ্গে আর থাকতে চায়না গুনগুন, নিজের বাবার মৃত্যু সংবাদ পেয়ে শোকে ভেঙে পড়ে গুনগুন

গত ২৪ শে মার্চ অকালপ্রয়াণ ঘটেছে টলিউডের বর্ষীয়ান অভিনেতা অভিষেক চ্যাটার্জীর। তার মৃত্যুতে শোকস্তব্ধ হয়ে পড়েছিল গোটা টলিউড ইন্ডাস্ট্রি। মৃত্যুর আগে তিনি স্টার জলসায় দুটি জনপ্রিয় ধারাবাহিক মোহর এবং খড়কুটো তে অভিনয় করছিলেন। অভিনেতার মৃত্যুর পর মাঝপথে বন্ধ করে দেয়া হয় মোহর ধারাবাহিক। কিন্তু খরকুটো ধারাবাহিক চলছিল কিন্তু সেখানে অভিষেক চ্যাটার্জী কে দেখা যাচ্ছিল না তবে খরকুটো ধারাবাহিকের লেখিকা লীনা গঙ্গোপাধ্যায় অভিষেক চ্যাটার্জী বদলে অন্য কাউকে আনবে কথা ভাবেনি। তাই ধারাবাহিকের গল্প যেমন চলছিল তার মাঝে ধারাবাহিকেও গুনগুনের বাবার মৃত্যু দেখানো হয়। অর্থাৎ ধারাবাহিকেও অভিনেতার মৃত্যুর মাধ্যমে তার চরিত্রের অবসান ঘটানো হয়।

যারা এই ধারাবাহিকে নিত্য দর্শক তারা জানেন যে গুনগুন যখন অন্তঃসত্তা ছিলো তখনই তার ড্যাডি মারা যায়। কিন্তু গুনগুন এই কথা শুনে অসুস্থ হয়ে পড়বে জেনে পরিবারের কেউই তাকে এই খবর দেয় না। আর পরে নিজের বাবার মৃত্যু সংবাদ গুনগুন জানতে পারে, সে জানতে পারে তার বাবা নেই আর এই কথা শুনে শোকে ভেঙে পড়ে গুনগুন তাকে সামলানো যায় না।

সম্প্রতি স্টার জলসার পক্ষ থেকে ধারাবাহিকের একটি ভিডিও ক্লিপ সোশ্যাল মিডিয়ায় স্টার জলসার অফিসিয়াল ফেসবুক পেজ থেকে পোস্ট করা হয় এবং সেই ভিডিওটিতে দেখা যাচ্ছে যে গুনগুন নিজের বাবার মৃত্যু সংবাদ পেয়ে কান্নায় ভেঙে পড়েছে এবং তাকে এত বড় ঘটনা না জানানোর জন্য সৌজন্য কে দোষী সাব্যস্ত করছে। সৌজন্য তার আপন হয়েও তার কাছে এত বড় একটা সত্যি গোপন করেছে তার কাছে সমস্ত তা লুকিয়ে গেছে তার ড্যাডি র মৃত্যুসংবাদ তাকে দেওয়া হয়নি। একজন সৌজন্য কে ঘৃণা করে গুনগুন।

তার সঙ্গে আর থাকতে চায়না গুনগুন এ কথা বারবার বলছিল সে। কিন্তু সৌজন্য ভেবেছিল শোকে প্রচন্ডভাবে ভেঙে পড়েছে গুনগুন তাই হয়তো পুরোটাই রাগের মাথায় বলছে। কিন্তু গুনগুন স্পষ্ট জানিয়ে দিল যে সে মন থেকে কথাগুলো বলছে আর হাসপাতাল থেকে নিজের সন্তানকে নিয়ে এসে সোজা তার মায়ের কাছে যাবে। এবারে দেখার অপেক্ষা কি হতে চলেছে আগামী দিনে ধারাবাহিকে। সত্যিই কি গুনগুন তার শ্বশুর বাড়ি ছেড়ে তার সন্তানকে নিয়ে বাপের বাড়ি চলে যাবে নাকি সমস্ত ভুল বোঝাবুঝি দূর হয়ে যাবে দুজনের মধ্যে।

Back to top button