বাংলা সিরিয়াল

‘ইষ্টিকুটুমের নোংরা ভার্সন! অনুজকে হিরো থেকে কার্টুন বানিয়ে দিল’-গুড্ডিকে অনুজের অসুখী হ‌ওয়ার অভিশাপ দেওয়া প্রসঙ্গে বললেন এক নেটিজেন!

স্টার জলসার জনপ্রিয় ধারাবাহিক গুড্ডি। এই ধারাবাহিকে সম্পর্কের জটিলতা দেখানো হয়। মানুষের মন আর মানসিকতা সব সময় যে নীতি বাক্যের ধার ধরে চলে না তাই এই ধারাবাহিকে দেখানো হয়। সেই কারণে অনুজ যখন গুড্ডিকে বিয়ে করে তখন সে গুড্ডিকে সহ্যই করতে পারতো না। এরপর যখন সে গুড্ডিকে ডিভোর্স দিয়ে শিরিন কে বিয়ে করে তখন থেকে সে গুড্ডির প্রতি দুর্বলতা অনুভব করতে থাকে। ডিভোর্স দিয়ে দ্বিতীয় বিয়ে করার পরে গুড্ডির সাথে সে ঘনিষ্ট হয়ে পড়ে,এমনকি গুড্ডির সাথে সে একরাত কাটায়‌ও।

কিন্তু সমস্ত কিছুর জন্য বারংবার গুড্ডিকে অপমানিত হতে হয় আর অনুজ সকলের সামনে দাঁড়িয়ে বলতে পারে না যে, সে গুড্ডিকে ভালোবাসে, সে শিরিনের সাথে থাকতে চায় না। অপরদিকে গুড্ডি যখন অন্য কাউকে বিয়ে করতে চাইছে তখন সে গুড্ডিকে ভয়ংকর ভাবে অপমান করছে।

সোশ্যাল মিডিয়ায় একজন নেটিজেন এই নিয়ে লিখেছেন যে,“অনুজ :- আমি তোমাকে অভিশাপ দিচ্ছি.. তুমি কোনো দিনও সুখি হতে পারবে না

Honestly দিন দিন অনুজকে cartoon বানিয়ে দিচ্ছে… নায়ক নাকি নায়িকা কে অভিশাপ দিচ্ছে… তাও আবার নায়কের বউ নাকি ভিলেন, তাকে সরানোর কোনো চেষ্টাই নেই নায়কের আবার নায়িকা কেও বিয়ে করতে দেবে না…প্রথমের দিকে কি ভালো ছিল অনুজ চরিত্রটা আর এখন মানে just কিছু বলার নেই
সব দিক বন্ধ হয়ে গেছে তাই এবার emotionally আটকাতে চাইছে…
এরপরও দাবি করে ওই Hero… কেন যে চরিত্র গুলো কে নিয়ে এতো জল ঘোলা করে লেখিকা … আর এতো বাড়াবাড়ি পর্যায়ে নিয়ে যায় যে ভক্তি উঠে যায় Heror প্রতি
তারপর তাকেই এক মুহূর্তে Hero বানাতে যায় ”-একজন আবার লিখেছেন যে এটা ‘ইষ্টিকুটুমের নোংরা ভার্সন’-এই কথার প্রতিবাদ করে আর একজন লিখেছেন অর্চি এভাবে এতটা অপমান করত না বাহাকে।

আরেকজন আবার লিখেছে যে, অর্চি যখন কমলিকাকে বিয়ে করেছিল তখন বাহার দিকে ফিরেও তাকাতো না আর যখন বাহার প্রতি দুর্বলতা অনুভব করে তখন কমলিকা কেই প্রথম বলে। অর্চির সাথে অনুজ এর আকাশ পাতাল পার্থক্য।

Back to top button