বাংলা সিরিয়াল

শৈলমায়ের বাবার বিনাশ হবে গৌরীর হাতেই! খাড়া নিয়ে ধেয়ে এলো গৌরি নিজের শ্বশুরকে শেষ করতে!

জি বাংলার জনপ্রিয় ধারাবাহিক ‘গৌরী এলো’। এই ধারাবাহিকে দেখানো হয় যে, গৌরী হচ্ছে মা কালীর আর ঈশান হলো দেবাদিদেব মহাদেবের অংশ। এই দুই অংশ মিলে গেলে ঘোমটা কালীর মুখের থেকে ঘোমটা খুলে যাবে। অন্যদিকে শৈলমায়ের বাবা চারিদিকে প্রচার করে বেরিয়েছে যে শৈল হল ঘোমটা কালীর অংশ, যা আসলে পুরোটাই মিথ্যা তাই তার মনের মধ্যে একটি ভয় রয়েছে এবং সেই ভয়টা থাকাটাই স্বাভাবিক।

কিছুদিন আগে দেখা গেছে যে মুক্তা দিদির সাথে কিছু ছেলে অসভ্যতামো করলে গৌরী তাদেরকে উচিত শিক্ষা দিতে গিয়ে মা কালীর রূপ ধারণ করে। সে সেই মুহূর্তে সবকিছু ভুলে যায় এবং হাতে একটা খাড়া নিয়ে ছুটে যায় এরপর ঈশান তাকে শান্ত করতে তার পায়ের নিচে শুয়ে পড়ে তখন গৌরী জিভ বার করে ফেলে এই পুরোটাই মা কালী এবং মহাদেবের অংশের সাথে মিলে যায় যা নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় মারাত্মকভাবে ট্রোল হয়েছে এই ধারাবাহিক।

কারণ সনাতন ধর্মের মানুষ জানেন ও বিশ্বাস করেন দেব দেবীরা খুব সাত্ত্বিকভাবে সংযত জীবন পালন করেন তারা যদি মর্ত্য লোকে অবতীর্ণ হয় তবু তাদের জীবনধারণের পদ্ধতি হবে সাধকদের মতোই যেমনটা হয়েছিল রামকৃষ্ণ পরমহংসদেব এবং সারদা মায়ের ক্ষেত্রে। কোন একজন মেয়ে সে পজেটিভ শক্তির আধার হতেই পারে সে মা দুর্গার কৃপাধন্য ভক্ত হতেই পারে কিন্তু তাকে স্বয়ং মা দুর্গা হিসেবে প্রেজেন্ট করা হচ্ছে এবং অন্যদিকে তার সাথে তার স্বামীর রোমান্স দেখানো হচ্ছে বিষয়টা দর্শকদের ঠিক হজম হয়নি।

সম্প্রতি গৌরী এলোর একটি নতুন ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়া আপলোড করেছে যেখানে দেখানো হচ্ছে যে শৈলমায়ের বাবা ভয় পাচ্ছে গৌরিকে দেখে আর গৌরী খাড়া নিয়ে তার দিকে ছুটে আসছে। অন্যদিকে শৈল মায়ের বাবা দেখছে যে গৌরীর হাতেই তার বিনাশ হচ্ছে। যদিও এই সবটাই তার মনের ভাবনা কিন্তু ওই যে বলে না যার মনের মধ্যে কু আছে, তার মনের মধ্যেই ভয় থাকবে এটা ঠিক তেমনটাই।

Back to top button