বাংলা সিরিয়াল

‘শিশু শিশুসুলভ আচরণের পরিবর্তে পাকামো করলে অসহ্য লাগে’! চিকুর বাবা মাকে স্পেস দেওয়ার কথা শুনে বিরক্ত নেটিজেন, গৌরী এলোর প্রোমো তুমুল ট্রোলড সোশ্যাল মিডিয়ায়

জি বাংলার জনপ্রিয় ধারাবাহিক ‘গৌরী এলো’। প্রথম থেকেই টিআরপি লিস্টে এই ধারাবাহিক ভালো মতো ফল করে। কখনো টিআরপিতে দেখা যায় এই ধারাবাহিক দ্বিতীয় হয়েছে,তো কখনো পঞ্চম। মোটকথা সেরা শীর্ষ ৫ ধারাবাহিকের মধ্যে এই ধারাবাহিক থেকেই যায়। এই ধারাবাহিকে দেখা যায় যে অনেক অতিপ্রাকৃত বিষয় দেখানো হয়। যেমন এই ধারাবাহিকের নায়ক ঈশান হলো শিবের অংশ আর এই ধারাবাহিকের নায়িকা গৌরী হলো মা কালীর অংশ। ধারাবাহিকে বলা হয় যেদিন শিব অংশের সঙ্গে শক্তি অংশের মিলন ঘটবে সেইদিন ঈশানের বাড়িতে বহু বছর ধরে পূজিতা ঘোমটা কালী দেবীর ঘোমটা খুলবে। এই ধারাবাহীকে ঈশানের পিসি শৈল আবার শৈল মা নামে সকলের কাছে দেবী কালীর অংশ রূপে পরিচিত, যদিও সে আদপে ভন্ড। তাই তার মধ্যে কোন দৈব শক্তি নেই, শুধু নাটক আর মিথ্যে আছে।

অন্যদিকে এই ধারাবাহিকের নায়িকা ও নায়ক যেহেতু দেব-দেবীর অংশ সেই কারণে তাদের দেবত্বকে প্রকাশ করতে নানান রকম অলৌকিক ঘটনা ঘটানো হয়। যেমন দেখানো হয় দেবী চামুণ্ডার মতো হাতে খাড়া নিয়ে গুন্ডাদেরকে একাই ধরে ধরে মারছে গৌরী কখনো আবার এই ধারাবাহিকে দেখানো হয় যে মৃত মানুষকে গৌরী আর ঈশান দুজনে মিলে বাঁচিয়ে তুলেছে। এইসব নিয়ে বর্তমান যুগে প্রায় ট্রোল হয়।

সম্প্রতি এই ধারাবাহিকের একটি প্রোমো জি বাংলা প্রকাশ করেছে যেখানে দেখা যাচ্ছে যে, ঈশানের বাড়ির একটি ছোট্ট ছেলে চিকু সে মাঝ রাত্রে খাটের মধ্যে বসে পড়েছে। তার দুপাশের বাবা মা শুয়ে আছে।‌ তারা চিকুকে উঠতে দেখে জিজ্ঞেস করে, কী হলো? তখন চিকু যা বলে তা শুনে তাদের মাথায় হাত পরার জোগাড়! চিকু বলে যে আমি অনেক ভেবে দেখলাম এখন তোমাদেরকে একটু স্পেস দেওয়া উচিত। আমি তো এখন বড় হয়ে গেছি তাই আমি আমার সমস্ত জিনিসপত্র নিয়ে আলাদা ঘরে সিফ্ট করবো। তোমরা এখানে থাকবে এই কথা শুনে চিকুর মা রেগে গেলেও চিকুর বাবা ভীষণ খুশি হয়। সে বলে তুই কি আজ রাত থেকে শিফট করবি? তাহলে আমি গুছিয়ে সব দিয়ে আসবো। চিকু বলে, না বাবা এভাবে কি করে হবে? সময় দাও আজকের রাতটা থেকে যায় কাল সব গুছিয়ে অন্য ঘরে শিফট করে যাব।

এই কথা শুনে চিকুর মা যখন বলে এসব কথা তোকে কে শিখিয়েছে তখন চিকুর বাবা বলে, উফফ তুমি না সত্যি পারো ছেলেটাকে নিয়ে আমার গর্ব হচ্ছে। ছেলে অন্য ঘরে শিফট করার কথায় চিকুর বাবার চোখে মুখে আনন্দ ফুটে উঠেছে। কিন্তু ধারাবাহিকের এই প্রোমো নিয়ে ইতিমধ্যেই ট্রোলিং শুরু হয়ে গেছে বাচ্চার মুখে এই ধরনের পাকামো সকলে মেনে নিতে নারাজ। একজন নেটিজেন তো সরাসরি কমেন্ট করেছেন শিশু শিশুসুলভ আচরণ করলে ভালো লাগে, পাকামি নয়। আমরা আধুনিক হয়েছি ঠিকই তবে অত্যাধুনিকতা ভালো নয়।

Back to top button