বাংলা সিরিয়াল

জি বাংলা নয় সমকামিতা প্রমোট করেছে স্টার জলসা! একটা ফান পোস্ট কে কেন্দ্র করে ঝগড়া পৌঁছে গেলো চ্যানেলের মধ্যে ‘সিদ্ধার্থ রাতুল প্রসঙ্গে সমকামী সিরিয়াল বলে মিঠাইকে যারা বয়কট করছেন তারা তখন কোথায় ছিলেন যখন Star Jalsha এক শোতে সরাসরি সমকামিতা প্রমোট করেছিলো?’ প্রশ্ন তুললেন মিঠাই ভক্তদের একটি বিরাট অংশ!

‘মিঠাই’ ধারাবাহিকে সিদ্ধার্থের কপালে রাতুলের একটা তিলক পরানোর দৃশ্য দেখিয়ে কয়েকজন মিঠাই ফ্যান মজা করেছিলেন যে,মিঠাইয়ের কপাল পুড়লো বলে! কিন্তু এই ফান পোষ্টটি সিরিয়াসলি নিয়ে নেয় প্রতিপক্ষ চ্যানেলের ভক্তরা। তারা মিঠাই ও রাতুলের এই বিষয়টিকে সিরিয়াসলি নিয়ে মিঠাই সিরিয়ালকে সমকামী সিরিয়াল বলে দাবি করে এবং সিরিয়ালটিকে বয়কট করতে বলে।

এখানেই থেমে না থেকে তারা মিঠাই ধারাবাহিকের সিদ্ধার্থ ও রাতুলের ফুলশয্যা নিয়ে উল্টোপাল্টা কথা বলতে শুরু করে। এইবার সেই সব পোষ্ট দেখে তিতি বিরক্ত হয়ে অবশেষে মুখ খুললেন মিঠাই ভক্তরা। একটি পোস্টে তারা লেখেন,“ মিঠাই ফ্যানরা বাড়াবাড়ি করছে, মিঠাইতে সমকামীতা সাপোর্ট করছে এগুলা যদি ১ মুহূর্তের জন্য সত্যি ধরেও নিই তাহলে এই সুশীল সমাজ তখন কোথায় ছিলো যখন Star Jalsha এর একটা শোতে সরাসরি সমকামীতা প্রমোট করা হয়েছিলো?? তখন কোথায় ছিলো তাদের যুবসমাজের প্রতি এতো চিন্তা? কই তখন তো কাউকে কথা বলতে দেখিনি?? বরং কেউ বললে বরং শুনতে হয়েছে ভারতীয় সংবিধানে স্বীকৃত(যদিও আমি জানি না) তাহলে আপনারা বলার কে? তাহলে আজ কেন এতো এলার্জি? নাম টা মিঠাই বলে?? যদি প্রতিবাদ করতেই হয় তাহলে আগে আপনাদের প্রাণপ্রিয় চ্যানেল জলসাকে বয়কট করুন৷ ৮০-৯০ হাজার hash tag তুলুন #boycottstarjalsha তারপর না হয় মিঠাইকে ও বয়কট করলেন।”- এই পোস্টটি করে তারা যে ভিডিওটি ট্যাগ করেন তা স্টার জলসার একটি শো এর ভিডিও।

যে ভিডিওটি ওই নেটিজেন ট্যাগ করেছেন সেই ভিডিওটি ‘আপনি কী বলেন’ এর ভিডিওটি। স্টার জলসায় শনি রবি, দুপুর আড়াইটায় এই অনুষ্ঠানটা হত। আপনি কি বলেন – এমন একটি সিরিয়াল যেখানে আজকালকার দিনের কিছু রিয়েল প্রবলেম এক্টরদের দিয়ে অভিনয় করিয়ে দেখানো হতো এবং তারপর দর্শকদের উদ্দেশ্যে প্রশ্ন করা হতো যে এই পরিস্থিতিতে তার কী করা উচিত? দর্শকরা উত্তরও দিতেন। সেই রকমই আপনি কী বলেন – এর একটি ভিডিও এই দিন উঠে এসেছে নেটিজেনদের নজরে।

পাকা দেখার পর পিউ জানালো যে, সে তার বান্ধবী পিয়ালীকে ভালবাসে, সে অরিত্রকে কিছুতেই বিয়ে করতে পারবে না। এইবার সাধারণ মানুষের উদ্দেশ্যে প্রশ্ন ছুঁড়ে দেওয়া হল, আপনি কী বলেন?- প্রচুর মানুষ তখন এই বিষয়টিকে সমর্থন করেছেন এবং বলেছেন যে তাদের নিজের চোখে দেখা এরকম অনেক মানুষ আছেন যারা বিয়ে করে সুখে আছেন।

Back to top button