বাংলা সিরিয়াল

‘খড়ি যে আর্টিস্ট এটা কখনো ভুলতে দেয় না, গাঁটছড়া সিরিয়াল! সব ট্রাকেই তাই খড়ির আর্টের ছোঁয়া থাকে এইবার দেবী পক্ষেও মা আসছেন খড়ির তুলির টানে!’ গাঁটছড়া সিরিয়ালের নতুন প্রোমো দেখে প্রশংসায় পঞ্চমুখ নেটিজেনরা!

স্টার জলসার জনপ্রিয় ধারাবাহিক গাঁটছড়া। এই ধারাবাহিকে কিছুদিন আগেই দেখা গেছে যে সিংহ রায় বাড়ির আসল শত্রু যে বাড়ির মধ্যেই লুকিয়ে আছে তার পর্দা ফাঁস করে দিয়েছে খড়ি। দত্তরা তো বাইরের শত্রু কিন্তু দত্তদের সাথে হাত মিলিয়ে এতকাল ধরে সিংহ রায়দের ক্ষতি করে এসেছে রাহুল, সেই কথা প্রকাশ পেয়ে গেছে। এরপর রাহুলকে পুলিশের হাতে ধরিয়ে দিয়েছে ঋদ্ধিমান। রাহুল শেষকালে ঋদ্ধির কাছে ক্ষমা চাইলেও ঋদ্ধি ক্ষমা করে নি কারণ সিংহ রায় বাড়ির ছেলেরা কখনো মেয়েদের অসম্মান করে না আর অসম্মান করলে তাদের ক্ষমা করাও হয় না।

দ্যুতিকে কিন্তু সিংহরাই পরিবারের সবাই আপন করে নিয়েছে কারণ সিংহ রায় পরিবারের সবাই জানে যে দ্যুতি বদলে গিয়েছে। দ্যুতিকে তারা তাই ভালোবেসে কাছে টেনে নিয়ে নিয়েছে। এরপর সাম্প্রতিক কালে গাঁটছাড়া ধারাবাহিকের যে প্রোমো দেখানো হচ্ছে সেখানে দেখা যাচ্ছে যে মহালয়া দিন তর্পণ করছে খড়ি, নিজের জেঠুর জন্য। এই তর্পণ করতে করতেই সে বলে যে আজ পাঁচ বছর ভট্টাচার্য বাড়িতে দুর্গা পুজো বন্ধ। এই কথা শুনে ঋদ্ধিমান অবাক হয়ে যায় এবং জিজ্ঞেস করে আপনাদের বাড়িতে আগে দুর্গাপুজো হতো?

খড়ি তখন বলে হ্যাঁ জেঠু মারা যাওয়ার পর থেকে এই পুজো বন্ধ হয়ে গেছে। এরপর ধারাবাহিকে দেখা যায় যে খড়ির চোখ বন্ধ করে ঋদ্ধি তাকে ভট্টাচার্য বাড়ির দালানে আনছে সেখানে মা দুর্গার আটচালা রাখা আছে কিন্তু মায়ের মূর্তি নেই। খড়ির হাতের টানে মা দুর্গা আসবে বলেই ঋদ্ধি মূর্তি আনেনি। তাই খড়ি রং তুলি নিয়ে বসে যায়, আর হাতের টানে মায়ের রূপ ফুটিয়ে তোলে।

এই প্রোমো দেখে একজন নেটিজেন বলেছেন যে,“গাঁটছড়ার এই দিকটা খুব ভালো লাগে খড়ি যে আর্টিস্ট এটা কখনো ভুলতে দেয়না। সব ট্র্যাকে খড়ির আর্ট এর ছোঁয়া থাকে। খড়ির চরিত্রটা খুবই unique বিয়ের পরও নিজের passion ঠিক রেখেছে। আর ঋদ্ধির চরিত্রের অসাধারণ development দেখিয়েছে writer এইজন্য writer কে অসংখ্য ধন্যবাদ। যেই ঋদ্ধিকে প্রথমে কেউ পছন্দ করতো না এখন সেই ঋদ্ধির মতো বর চায় সবাই এই পরিবর্তনটা খুবই ভালো লাগছে।”

Back to top button