বাংলা সিরিয়াল

‘হেটারদের মুখে ঝামা ঘষে লালন ও ফুলঝুরির মিল করিয়ে দিলো তিতির!’তিতিরের পজেটিভ রোল দেখে বলছেন নেটিজেনরা!

স্টার জলসার জনপ্রিয় ধারাবাহিক ধুলোকণা। এই ধারাবাহিকে কিছুদিন আগে দেখা গিয়েছে যে, লালনের স্মৃতি ভ্রষ্ট হয়ে গেছে এবং সে বিয়ে করেছে তিতির কে। অবশ্য এক্ষেত্রে সিঁদুর দান হয়নি লিপস্টিক দান হয়েছে বলা ভালো। সিঁদুর দেখে লালনের চরম অস্বস্তি হওয়ায় তিতির লালনকে বলে, লিপস্টিকটাই সিঁথিতে পরিয়ে দিতে, লালন তখন তাই করে। এরপর গানের মঞ্চে এসে লালনের সমস্ত পূর্ব স্মৃতি ফিরে আসে, সে ফুলঝুরি কে চিনতে পারে এবং ফুলঝুরির কাছে ফিরে যেতে চায়। ধারাবাহিকে যখন এইরকম একটা টুইস্ট এসে উপস্থিত হয়েছে তখন সকলেই ভেবেছিলেন যে তিতির খলনায়িকা হয়ে নেগেটিভ আচরণ করবে।

সবাই যখন ভেবেছিল যে তিতির লালনকে আটকে রাখবে কারণ সে ফুলঝুরিকে দিয়ে ডিভোর্স পেপারে সাইন করিয়ে নিয়েছে তখন তিতির ১৮০ ডিগ্রি ঘুরে যায়।এই ধারাবাহিকে দেখানো হয় যে, সে পুরো একটি পজেটিভ রোল, সে কোন ডিভোর্স পেপারে ফুলঝুরিকে দিয়ে সাইন করায় নি বরং সে এমন একটি পেপারে সাইন করিয়েছিল যেখানে লেখা ছিলো যে তিতির লালন কে নিয়ে একটি এক্সপেরিমেন্ট করছে এবং এক্সপেরিমেন্ট চলাকালীন তিতিরের কাছেই লালন থাকবে কিন্তু লালনের ঞ্জান ফিরে এলে লালন আবার তার পরিবারের কাছে ও স্ত্রীর কাছে ফিরে যাবে।

যা দেখে‌ একজন নেটিজেন সোশ্যাল মিডিয়ায় লিখেছেন,“তিতির আবারও ঝামা ঘষে দিল নিন্দুকদের মুখে।তিতির শুরু থেকেই পজেটিভ চরিত্র ছিল এখনো তাই আছে।তিতির সাইকোলজি নিয়ে পড়াশোনা করেছে।লালনকে নিয়ে এটা তার এক্সপেরিমেন্ট ছিল।লালফুলের মিলন ঘটানোই তার উদ্দেশ্য ছিল।

তিতির লালনকে বিয়ে করতে চায়নি।এজন্যই লিপস্টিক পড়েছিল।বিয়ের পর একসাথে থাকতোও না।সিঁদুরও পড়তো না।অযথা কিছুজন ৩য় বিয়ে আর নোংরা যতসব কথা বলে ধূলোকণাকে ছোট করতে চেয়েছিল।তারা আজকের এপিসোড দেখে কি বলবে আমি জানতে চাই?

তিতির ফুলকে দিয়ে কোন ডিভোর্স পেপারেও সাইন করায়নি।দুজনকে মিলিয়ে দিল তিতির।
আজকে বেস্ট একটা এপিসোড হল ধূলোকণার।তিতির রকস হেটার শকড।

ধূলোকণা যে আর পাঁচটা ধারাবাহিক এর মত না সেটা আবার প্রমাণিত হল।কোন ঢলাঢলি,নোংড়ামি দেখায়নি আজ পর্যন্ত।যথেষ্ট মার্জিত উপায়ে স্টোরি রান করিয়ে এসেছে।

বরাবরই ভালো ছিল আর এখনো খুব ভাল হচ্ছে।”

Back to top button