বাংলা সিরিয়াল

‘মিঠাই’ নিয়ে যা বলেছি, মিলেছে! উচ্ছেবাবুর সঙ্গে সম্পর্ক নিয়ে মুখ খুললেন ইন্দ্রাশিস, ধুলোকণার লালন ইন্দ্রাশিসের মুখে মিঠাইয়ের আদৃতের প্রশংসা শুনেই লালনের ফ্যান হয়ে গেলো মিঠাই ভক্তরা

দীর্ঘ সময়ের প্রতীক্ষার অবসান ঘটিয়ে চড়ুইয়ের মুখে কার্যত ঝামা ঘষে ফুলঝুরির সিঁথিতে সিঁদুর দিয়েছে লালন। অন্যদিকে লালন ফুলঝুরির বিয়ের ট্রাক আসায় জি বাংলার মিঠাই কে হারিয়ে বঙ্গ সেরার আসন আবার ছিনিয়ে নিয়েছে স্টার জলসার ধুলোকণা সিরিয়াল। গত সপ্তাহের ৮.০ টিআরপির পর এই সপ্তাহে টিআরপি বেড়ে হল ৯.৩। নিজেদের অভিনীত ধারাবাহিক বঙ্গ সেরা হওয়ায় স্বাভাবিকভাবেই খুশি হয়ে গেলেন লালন অর্থাৎ ইন্দ্রাশিস রায়।

এই প্রসঙ্গে একটি সংবাদমাধ্যমকে দেয়ার সাক্ষাৎকারে অভিনেতা জানান আজ বৃহস্পতিবার সেটে তিনটি কেক আনা হবে। একটি বঙ্গ সেরা হওয়ার জন্য একটি তাদের টিম ওয়ার্কের জন্য আর একটির কারণ এক বছর আগে আজকের দিনেই তারা শুটিং শুরু করেছিলেন। অর্থাৎ ধারাবাহিকের জন্মদিনের জন্য। অভিনেত্রী ঈপ্সিতা মুখোপাধ্যায় তাকে আবদার করেছেন যে, নায়ককেই সবাইকে খাওয়াতে হবে। সবাই আজ ভীষণ খুশি বলেও জানান অভিনেতা।

ইন্দ্রাশিষ আরো বলেন যে, “আসলে সিরিয়াল শুটিংয়ের যে প্যাটার্ন দেখা যায় সাধারণত তার থেকে আমাদের শুটিং এর ধরন একেবারে আলাদা কেবল সেটে বসে শ্যুট হয় না। বস্তি হোক, রক মিউজিক কনসার্ট হোক, বিভিন্ন জায়গায় ঘুরে ঘুরে কাজ করি আমরা। যার ফলে পরিশ্রম করতে হয় অনেকটা। সেই পরিশ্রমের ফলাফল যখন এমন মিটে হয় কার না আনন্দ হয়।” তবে অভিনেতা এও জানান যে কাজ করবার সময় তিনি কোন প্রতিযোগী মনোভাব রাখেন না ।মিঠাইয়ের অভিনেতা আদৃত তার খুব প্রিয় একজন মানুষ। তবে নিজের ধারাবাহিক বঙ্গ সেরা হলে একটা অন্য আনন্দ হয় সেটা তিনি অনুভব করেন।

একই সাথে মিঠাই ধারাবাহিকের নায়ক আদৃতের প্রশংসা করে ইন্দ্রাশিস বলেন,“এত ছোট বয়সে এত গুণী ছেলে কত কী অর্জন করছে ভেবেও ভালো লাগে। এরকম কতবার হয়েছে যে আমরা সেরা হলাম বা ওরা সেরা হল আমরা সেট থেকে বেরিয়ে একে অপরকে শুভেচ্ছা বিনিময় করেছি। আজ কাজের খুব চাপ বলে দেখা হয়নি। তবে দেখা তো করবোই। কিন্তু লকডাউনের সময় যখন এই সিরিয়ালের প্রোমোটা দেখি তখন আমি আমার এক বন্ধুকে বলেছিলাম, দেখিস এই সিরিয়াল টা চলবে। চলল তো। মানুষ খুব ভালোবেসে মোদক পরিবারকে দেখছে। যা বলেছিলাম মিলে গেল।” ইন্দ্রাশিসের মুখে আদৃতের এই প্রশংসা শুনে মিঠাই ভক্তরা যে এবার ললনের ফ্যান হয়ে যাবে সে কথা বলায় বাহুল্য।

Back to top button