বাংলা সিরিয়াল

একদম বাড়ির মায়েদের কথা বলবে ‘সর্বজয়া’! একজন সাধারন গৃহিণীর অসামান্য গল্প দেখা যাবে, ফাটিয়ে দিচ্ছেন অভিনেত্রী দেবশ্রী রায়

শীঘ্রই শেষ হতে চলেছে জি বাংলার এক ঝাঁক ধারাবাহিক, এর পরিবর্তে শুরু হতে চলেছে কিছু নতুন ধারাবাহিক যার মধ্যে অন্যতম একটি হলো ‘ সর্বজয়া ‘। আগামী ৯ই আগস্ট থেকে জি বাংলার পর্দায় শুরু হতে চলেছে সর্বজয়া।

এই ধারাবাহিকের মধ্যে আবারও টেলিভিশন জগতের জনপ্রিয় অভিনেত্রী দেবশ্রী রায় কে দেখা যাবে। বহু বছর বাদে আবারো টেলিভিশনের পর্দায় ফিরতে চলেছেন অভিনেত্রী। মাঝে রাজনৈতিক ময়দানে নেমে ছিলেন তিনি, তবে রাজনৈতিক ময়দানের পাঠ চুকিয়ে আবারও অভিনয় জগতে ফিরতে চলেছেন দেবশ্রী।

সর্বজয়া তে একজন সাধারন গৃহিণীর অসামান্য গল্প দেখা যাবে। ধারাবাহিকে দেবশ্রীর বিপরীতে থাকছেন কুশল। ইতিমধ্যেই ভাইরাল হয়েছে সর্বজয়া প্রমো ভিডিও।

প্রমো ভিডিওটিতে দেখা যাচ্ছে সর্বজয়া বাড়ির সকলের জন্য শপিং করতে গিয়েছেন, সকলের পছন্দ-অপছন্দের সমস্ত জিনিস খুঁটিনাটি তিনি কিনছেন অথচ সবশেষে নিজের জন্য তিনি কিছুই কিনছেন না। সংসারে থেকে সবার মাঝে নিজের ইচ্ছে গুলো যেন কোথায় চাপা পড়ে গিয়েছে তার।

নিজে কিছু না কেনাই তার স্বামী তাকে জিজ্ঞাসা করে নিজের জন্য কিছু কিনলে না তার উত্তরে সর্বজয়া বলে তার উত্তরে তিনি বলেন সবার পছন্দের মধ্যেই তার পছন্দ রয়েছে সবাই খুশি হলে তিনিও খুশি। ধারাবাহিকে দেখা যায় তার স্বামী সবসময় তাকে একা পথ চলার জন্য উৎসাহিত করতে থাকে কিন্তু সর্বজয়া একা চলতে সাহস পায় না। শপিংমলে শপিং করতে এসে একা এস্কেলেটরে চড়তে ভয় পান তিনি।

হাত বাড়াতেই তিনি পাশ ফিরে দেখেন তার স্বামী তার পাশে নেই। কিন্তু হঠাৎই আইসক্রিম হাতে পাশে এসে দাঁড়ান কুশল। তিনি সর্বজয়া কে উৎসাহিত করতে থাকেন যে তিনি একা চলতে পারবেন এবং উৎসাহিত করতে করতে হঠাৎ তিনি একা চলতে শুরু করেন। আপাতত প্রমো ভিডিও গুলির কাহিনী অনুযায়ী বোঝা যাচ্ছে একজন সাধারণ গৃহিণীর একা পথ চলার গল্পই দেখানো হবে এই ধারাবাহিকের মাধ্যমে।

প্রকৃতপক্ষে সর্বজয়ার মত আমাদের প্রত্যেকের ঘরে এমন একজন মহিলা রয়েছেন যারা সংসারে আসার পরে তাদের সমস্ত ইচ্ছে অনিচ্ছে, ভালোলাগা-মন্দলাগা বিসর্জন দিয়ে দেন। মা হওয়ার পরে সে দায়িত্ব যেন আরো দ্বিগুন হয়ে যায়। তখন নিজের জন্য সময় বার করা যেন এক বিরাট বড় ব্যাপার হয়ে দাঁড়ায়। কিন্তু তার স্বামী অর্থাৎ তার মনের মানুষটি যদি পাশে থাকে তাহলে সেই চলার পথে যেন একটু হলেও সহজ হয়ে যায়। ধারাবাহিকে সেই গল্পই তুলে ধরা হবে।

Back to top button