বাংলা সিরিয়াল

ব্রেকআপ তুচ্ছ! ‘দিদি নম্বর ১’ এর মঞ্চে নতুন জীবনসঙ্গীর খোঁজে অকপট শ্রীময়ীর জুন আন্টি উষসী চক্রবর্তী

শ্রীময়ী ধারাবাহিকের জুন আন্টিকে চেনেন না এমন দর্শক হয়তো খুবই কম রয়েছে। রিয়েল নামের থেকে রিল নামে বেশি পরিচিত তিনি। জুন আন্টি অর্থাৎ উষসী চক্রবর্তী স্টার জলসার জনপ্রিয় ধারাবাহিক শ্রীময়ী মধ্য দিয়ে এই অভিনেত্রী দর্শকমহলে পরিচিতি পান। জুন আন্টির অভিনয় দক্ষতা যেমন দর্শক মহলে প্রশংসিত হয়েছে ঠিক তেমনি প্রশংসিত হয়েছে পড়াশুনার মেধাও। অভিনেত্রী অভিনয়ের সাথে সাথে চালিয়ে গেছেন পড়াশোনা।

উষসী চক্রবর্তী কিছুদিন আগেই পেয়েছেন ডক্টরেট উপাধি। এই ডক্টরেট এপ্লাই করার জন্য অভিনেত্রীর বাবা অভিনেত্রীকে জোর করেছিলেন। তবে অভিনেত্রী ডক্টরেট উপাধি পাওয়া দেখে যেতে পারেননি তাঁর বাবা। অত্যাশ্চর্য ভাবে বাবার মৃত্যুর এক বছরের মধ্যেই তার হাতে আসে ডক্টরেট সার্টিফিকেট। বাংলার অন্যতম বিনোদনকারী শো দিদি নাম্বার ওয়ান। সেই মঞ্চেই উষসী চক্রবর্তীর হাজির ছিলেন স্পেশাল গেস্ট হিসেবে।

দিদি রচনা ব্যানার্জীর মুখোমুখি হয়ে খলনায়িকা জুন আন্টি খুলে বলেন তার মনের কথা। অভিনেত্রীর পিতৃবিয়োগের পর থেকে নিজের জীবনের সব কথাই জানান তিনি। এমনকি অভিনেত্রীর জনপ্রিয় মুখের অঙ্গভঙ্গি নিয়েও চলে জোরদার হাসাহাসি। অভিনেত্রীকে দেখা যায় এমনকি নিজের ব্যক্তিগত জীবন নিয়ে মুখ খুললেন এই মঞ্চে। অভিনেত্রীর বাবার মৃত্যুর পর তিনি আপাতত একাই রয়েছেন। তবে জীবনে যে শেষ কাল অবধি একা বাচা কঠিন সেটা সবারই জানা।

অভিনেত্রী এখন প্রয়োজন একজন সঙ্গীর সাথে রঙিন বসন্ত গুলি তিনি কাটাতে পারবেন। সঙ্গী ছাড়া পুজো কিংবা বসন্ত সবকিছুই যেন ফিকি লাগে। তাই অভিনেত্রী এখন রয়েছেন নতুন সম্পর্কের খোঁজে। যদি অভিনেত্রী এর আগে আবদ্ধ ছিলেন অ্যাপ সম্পর্কে, সেটা বর্তমানে ভেঙে গিয়েছে। নতুন করে মিঙ্গেল হওয়ার স্বপ্ন দেখছেন তিনি। তবে অভিনেত্রীর চাহিদা রয়েছে বেশকিছু কোয়ালিটির। সেগুলির মধ্যে উল্লেখযোগ্য হল তারক হবু সঙ্গীকে হতে হবে স্বাস্থ্যসচেতন এবং যত্নবান। এর পাশাপাশি অভিনেত্রী জানিয়েছেন তিনি রান্না করতে জানে না শুধুমাত্র জল গরম টুকু করতে পারেন। এছাড়াও পারেন ডিম সিদ্ধ আর নুডুলস বানাতে। কাজেই তার সঙ্গীকে একটু-আধটু রান্নায় হতেই হবে সেটা বোঝাই যাচ্ছে তার কথা থেকে।

Back to top button