বাংলা সিরিয়াল

বাপরে এত্ত ঝগড়া করে কেন? ব্রেকফাস্ট খেতে বসা নিয়ে গোল বাঁধলো পোখরাজের বাড়িতে, তমালী বেফাস মন্তব্য করতেই মুখে ঘষে দিল ঝামা, পোখরাজের ‘শিক্ষিত বাড়ি’র কোন্দল দেখতে দেখতে অতিষ্ঠ দর্শক

স্টার জলসার(Star Jalsha) পর্দায় প্রচারিত এক্কাদোক্কা(Rkka dokka)ধারাবাহিকের চর্চা যেন থামছেই না। রোজ কিছু না কিছু নতুন ঝামেলা নিয়ে উপস্থিত হয় পোখরাজের পরিবার। যেন তেন কারনে কাঠগোড়ায় দাঁড় করায় রাধিকাকে। অনেকেরই দাবি দিনে দিনে যেন এই ধারাবাহিক বধূ নির্যাতনের রোল মডেল হয়ে উঠছে।

কিভাবে নতুন বউকে বাড়ি এনে তাকে অতিষ্ট করে তুলতে হয় ,তার ওপর মানসিক শারীরিকভাবে অত্যাচার করতে হয় সেই সবকিছু শিক্ষা যেন দেওয়া হচ্ছে এই ধারাবাহিকে। যে কারণে সোশ্যাল মিডিয়াতে ধারাবাহিককে নিয়ে চর্চা থামছে না। অনেকে আবার সরাসরি লেখিকার দিকে আঙুল তুলেছেন। এর আগেও ধারাবাহিকে এমন কিছু দৃশ্য দেখানো হয়েছে যেগুলি ‘মধ্যযুগীয় বর্বরতা’ বলে মনে হয়েছে অনেকের।

বিশেষ করে রাধিকাকে যেভাবে দোষারোপ করা হয় সামান্য কারণেও তা দেখতে দেখতে অতিষ্ঠ দর্শক। সম্প্রতি ধারাবাহিকের একটি পর্বে দেখানো হয়েছে ব্রেকফাস্ট টেবিলে খেতে বসেছে পরিবারের সবাই। যেখানে রাধিকা তার শশুরকে নিজে থেকে টোস্ট দিয়েছে বলে ঠেশ মেরে কথা শোনাচ্ছেন পোখরাজের মা।

অন্য দিকে পোখরাজের দেরি করে ঘুম থেকে ওঠাতে কেন্দ্র করেও অভিযোগের তীর ওঠে রাধিকার দিকে। তবে এবারে চুপ থাকেনি পোখরাজ। পোখরাজের মেজো মা মন্তব্য করেন ‘নতুন নতুন বিয়ে করলে দেরি থেকে ঘুম থেকে ওঠা লাইসেন্স পাওয়া যায়’।রাধিকার দিকে আঙুল উঠতেই পোখরাজ মন্তব্য করে সে যেন নিজের সম্মান ভুলে না যায়। সে তার ভাই বোন নয়।

এমনই নানা সামান্য ব্যাপারে কারণে অকারণে রাধিকা কি কাঠগোড়ায় তোলা নিয়ে বিরক্ত দর্শক। একজন মন্তব্য করেছেন বাপরে এরা সব সময় এত ঝগড়া কেন করে। আবার কেউ লিখেছেন তমালিকে যেমন ভাবে মুখে ঝামা ঘষে দিয়েছে পোখরাজ ভালো লাগলো।

সোজা কথায়, এক্কাদোক্কা ধারাবাহিকের গল্প নিয়ে বেশ বিরক্ত ধারাবাহিক ভক্তরা। পোখরাজের পরিবারকে শিক্ষিত পরিবার হিসেবে দেখালেও তার নমুনা পাওয়া যাচ্ছে না একেবারেই।

Back to top button