বাংলা সিরিয়াল

বাংলার ঘরে ঘরে ঢুকে লোকের ব্যক্তিগত জীবন সামনে আনছে দিদি নাম্বার ওয়ান, পরনিন্দা পরচর্চার অনুষ্ঠান নাম দেওয়া উচিত, মেয়ের বাপেরবাড়ি-শ্বশুরবাড়িকে মুখোমুখি বসে কি সালিশি সভা করছে রচনা! ক্ষুব্ধ দর্শক

জি বাংলার(Zee Bangla) তথা এই বাংলার এক নম্বর জনপ্রিয় রিয়ালিটি শো(Reality Show) দিদি নাম্বার ওয়ান(Didi No 1)। টিআরপি তালিকার উপর তেমন নজর নেই এই রিয়ালিটি শো’য়ের। তাদের মূল লক্ষ্য বাংলার ঘরে ঘরে পৌঁছে জনপ্রিয়তা লাভ করা। বলাবাহুল্য সেই লক্ষ্যে পৌঁছে গিয়েছে এই শো।

তবে এর সাফল্যের বেশিরভাগ কৃতিত্ব রচনা বন্দ্যোপাধ্যায়ের(Rachana Banerjee)। বহু মানুষ প্রতিদিন বিকেল বেলা টিভি খুলে দেখতে বসেন শুধুমাত্র রচনা বন্দ্যোপাধ্যায়কে দেখবেন বলে। তাছাড়া তার অমায়িক ব্যবহার, সবার সঙ্গে মিশে যাওয়া, তারকা থেকে সাধারণ মানুষ সবার সঙ্গে জমিয়ে আড্ডা দেওয়া এই সবকিছুই নজর কেড়েছে দর্শকদের।

যদিও কিছু কিছু ক্ষেত্রে সমালোচনা উঠে এসেছে এই রিয়ালিটি শো’কে ঘিরে। যেমন সম্প্রতি সোশ্যাল মিডিয়াতে(Social Media) ভাইরাল হয়েছে একটি ভিডিও(Viral Video)। যাচ্ছে একটি মেয়ের বাপেরবাড়ি এবং শ্বশুরবাড়ির বেয়ান বেয়াই এসে একে অপরের সঙ্গে যা নয় তাই কুৎসা করে বেড়াচ্ছে। আর সেটা কি তাড়িয়ে তাড়িয়ে উপভোগ করছেন রচনা ব্যানার্জি। মাঝেমধ্যে ধুনো দিচ্ছেন দুজনকে। মেয়ের মা তার মেয়ের দোষ দেখতে পাচ্ছে না অন্যদিকে শাশুড়ি খুঁজে খুঁজে মেয়ের দোষ বের করছে। আবার মেয়ের মা তার জামাইয়ের দোষ দিচ্ছে বলে ছেলের মা হাটে হাড়ি ভাঙছে তাদের বাড়ির।

তবে রচনা বন্দ্যোপাধ্যায় এটি উপভোগ করলেও সাধারণ মানুষ খুব একটা ভালোভাবে নেয়নি জিনিসটি। অনেকের বক্তব্য এটা কোন ধরনের ভাবনা চিন্তা? শুধু মাত্র একটু টিআরপির লোভে এইভাবে লোকের ব্যক্তিগত খবর বাইরে ফাঁস করে দেওয়া কি উচিত। সাধারণ মানুষ তো বুঝতেও পারছে না কোনটা আসল কোনটা নকল। দিদি নাম্বার ওয়ান তো বাংলার সব থেকে বড় পরনিন্দা পরচর্চার অনুষ্ঠান।

Back to top button