বাংলা সিরিয়াল

“শুকুনটা অপেক্ষায় ছিল”, অভিনেত্রী ঐন্দ্রিলা শর্মার মৃত্যুর পর সোশ্যাল মিডিয়ার দ্বিতীয় ছবি পোস্ট করে নেটিজেনদের কটাক্ষের শিকার হলেন কমেডিয়ান স্যান্ডি সাহা

মাত্র ২৪ বছর বয়সেই সকলকে কাঁদিয়ে চিরকালের মত ঘুমের দেশে চলে গেলেন টেলিভিশনের ছোট পর্দা অভিনেত্রী ঐন্দ্রিলা শর্মা। যেদিন থেকে তার অসুস্থতার খবর সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়েছে সেদিন থেকেই প্রত্যেকে ভগবানের কাছে অভিনেত্রীর জন্য প্রার্থনা করেছিলেন।

প্রার্থনা করেছিলেন যাতে তিনি আবার লড়াই করে মৃত্যুর মুখ থেকে ফিরে আসেন। এমনকি অভিনেতা সব্যসাচী চৌধুরী অর্থাৎ অভিনেত্রীর প্রেমিক ও একটা মিরাকেলের আশায় ছিলেন। এখনো অভিনেত্রীর মৃত্যু শোক কাটিয়ে উঠতে পারেনি কেউ। এর মাঝেই সোশ্যাল মিডিয়ায় কটাক্ষের সম্মুখীন হলেন কমেডিয়ান স্যান্ডি সাহা।

অভিনেত্রী মৃত্যুর পরে সোশ্যাল মিডিয়া স্যান্ডি দুটি ছবি পোস্ট করেন। একটিতে ঐন্দ্রিলার একার ছবি অন্যটিতে ঐন্দ্রিলা, স্যান্ডি এবং সব্যসাচীকে একই ফ্রেমে দেখা গিয়েছে। সেই ছবি পোস্ট করে স্যান্ডি ক্যাপশনে লিখেছিলেন “যেখানেই থাকো ভালো থাকো।” আর স্যান্ডি এই পোস্ট করা মাত্রই নেটিজেনদের একাংশ তাকে বিভিন্ন রকমভাবে কটাক্ষ করেন। ”তুমি তো অপেক্ষায় ছিলে”,”শুকুনটা অপেক্ষায় ছিল” একাধিক কমেন্টে ভরে যায় কমেন্ট বক্স।

আসলে এর আগের বুধবার স্যান্ডি সাহা প্রথমবার ঐন্দ্রিলার হার্ট অ্যাটাকের খবর শুনে সোশ্যাল মিডিয়ায় অভিনেত্রীর ভুয়ো মৃত্যুর খবর ছড়িয়ে দেন। তার জন্য তিনি অভিনেতা সব্যসাচীর কাছে ক্ষমা চেয়েছেন এবং পরে সেই পোস্ট ডিলিট করে দেন। কিন্তু ততক্ষণে আগুন অনেকটাই ছড়িয়ে গিয়েছিল। গত ২০ শে নভেম্বর দুপুর ১২ঃ৫৯ মিনিটে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন ঐন্দ্রিলা। টানা ২০ দিনের লড়াইয়ের পরও অবশেষে হাল ছেড়ে দেন। মৃত্যুর আগের রাতে তার ১০ বার হার্ট অ্যাটাক হয়েছিল। কি পরিমাণ শারীরিক যন্ত্রণা দিয়ে যে তিনি গিয়েছিলেন সে কটা দিন সেটা চোখে না দেখলে হয়তো বিশ্বাসই করা যাবে না।

Back to top button