বাংলা সিরিয়াল

“সব‍্যসাচী, শক্ত থাকো ভাই!” – ঐন্দ্রিলার অসুস্থতার খবর পেয়েই সব্যসাচীকে শক্ত হওয়ার বার্তা দিলেন আদৃত

অভিনেত্রী ঐন্দ্রিলা শর্মার অসুস্থতার খবর ইতিমধ্যেই ছড়িয়ে গিয়েছে গোটা বাংলায়। সকলেরই এখন একটাই প্রার্থনা যে তাড়াতাড়ি সুস্থ হয়ে উঠুন অভিনেত্রী। একবার নয় দুই দুইবার ক্যান্সারকে জয় করে আবার ফিরে এসেছিলেন তিনি। কিন্তু গত মঙ্গলবার রাতে আবার হঠাৎই অসুস্থ হয়ে পড়েন। মাথায় রক্তক্ষরণ হয় তাঁর। আগে দুবার মৃত্যুর মুখ থেকে ফিরে আসলেও এখন আবার সেই একই লড়াই এর মুখে পড়লে অভিনেত্রী। গত বুধবার অভিনেত্রীর মা জানিয়েছিলেন অবস্থা আশঙ্কাজনক হলেও অভিনেত্রী এখন কোমা থেকে ফিরে এসেছেন।

গত মঙ্গলবার রাতে হঠাৎ ব্রেন স্ট্রোক হয় ঐন্দ্রিলার। প্রথমে হাত তারপর ঠিক পাঁচ সাত মিনিটের মধ্যে সেই দিকেরই পা অবশ হয়ে যেতে থাকে। সাথে বমিও করতে থাকেন তিনি। আর তখনই দেরি না করেই সাথে সাথে হাওড়ার একটি বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি করা হয় তাঁকে। মঙ্গলবার রাতেই ক্রেনিওটমি অস্ত্রোপচার হয়। এই অস্ত্রোপচারে স্কালের একটা হাড় এর অংশ বিশেষ বার করা হয় মস্তিষ্ক ওপেন করার জন্য। এরপর অভিনেত্রী কোমায় চলে যান। তবে ২৪ ঘন্টার মধ্যে অর্থাৎ গত বুধবার রাতেই কোমা থেকে ফিরে এসেছেন অভিনেত্রী। চোখ খুলতে পেরেছেন, হাতও নাড়াতে পারছেন বলেই জানানো হয় অভিনেত্রীর পরিবারের তরফ থেকে।

অভিনেত্রী এইরূপ অবস্থায় বাংলার আট থেকে আশি সকলেই এখন তাঁর আরোগ্য কামনা করছেন। তাঁর অনুরাগীরা প্রার্থনা করছেন প্রিয় অভিনেত্রীর সুস্থতার। সব্যসাচীকে এরূপ কঠিন পরিস্থিতিতে শক্ত থাকার কথা বলছেন তাঁর সহ অভিনেতা অভিনেত্রী এমনকি তাঁর অনুরাগীরাও। অভিনেত্রীর অনুরাগীরা অভিনেত্রীকে উদ্দেশ্য করে প্রচুর বার্তা পাঠাচ্ছেন তাঁর সুস্থতার। শুধু অভিনেত্রীর অনুরাগীরা নয় সহ অভিনেতা-অভিনেত্রীদের মধ্যে অনেকেই বার্তা দিচ্ছেন অভিনেত্রীর উদ্দেশ্যে।

একটি টেলিফিল্মে ঐন্দ্রিলা কাজ করেছিলেন আদৃতের সাথে। ঐন্দ্রিলার একসময়ের সহ অভিনেতা ছিলেন আদৃত রায়। নিজের সহ অভিনেত্রীর শারীরিক অবস্থা শুনে থাকতে পারেননি অভিনেতা। সব্যসাচী এবং ঐন্দ্রিলার হাসিমুখের একটি ছবি পোস্ট করে অভিনেতা লেখেন, “ঐন্দ্রিলা তুমি অন‍্যতম সেরা অভিনেত্রী যার সঙ্গে আমি কাজ করেছি আর আমি ভাগ‍্যবান যে এমন প্রতিভাবান কারোর সঙ্গে কাজ করার এবং শেখার সুযোগ পেয়েছি। তুমি খুব তাড়াতাড়ি সুস্থ হয়ে উঠবে! সব‍্যসাচী, শক্ত থাকো ভাই! তোমাকে দেখে সবসময় অনুপ্রাণিত হয়েছি! তোমাদের দুজনকেই অনেক ভালবাসা”।

Back to top button