বাংলা সিরিয়াল

অনস্ক্রিন জবা – পরমের জুটি ভেঙে যাওয়ায় বেশ কষ্ট পেয়েছিলেন দর্শক, গলায় সেলোটেপ লাগিয়ে বেঁচে ওঠার পরেও ভেঙে গেলো এই জুটি? তাই এবার দর্শকের চাহিদায় আবার একসাথে দেখা গেলো এই জুটিকে!

কোনো একটা ধারাবাহিক শুরু হলে সেখানে নায়ক নায়িকা হিসেবে আমরা যাদের দেখি তাদেরকে দেখেই যেন চোখ সওয়া হয়ে যায়। সাধারণ মানুষ মনে করতে শুরু করে অন স্ক্রিন এদের কেমিস্ট্রি এত ভাল তাহলে অফ স্ক্রিনেও এদের কেমিস্ট্রি নিশ্চয়ই রয়েছে। আবার অনেকে ভাবেন কাজ করতে করতে এদের মধ্যে কেমিস্ট্রি তৈরি হলে তাঁদের ভালই হবে। কিন্তু একটা প্রজেক্ট শেষ হয়ে যাওয়ার পর যখন সাধারণ মানুষ দেখেন যে এই জুটি এবার ভেঙে যাবে তখন তাদের খুব কষ্ট হয়। হামেশাই দেখা যায় সেই জুটি ভেঙ্গে সে নায়ক বা নায়িকা জুটি বেঁধেছেন অন্য কারোর সাথে সেটা মানুষ ঠিক সহজে মেনে নিতে পারেন না। তাই জন্যেই সোশ্যাল মিডিয়াতে প্রায়শই নিজেদের দাবি বলে থাকেন যে কোন জুটি তারা পছন্দ করছেন। তেমন একটি জুটি হলো জবা পরমের জুটি।

যেমন একটা উদাহরণ দিয়ে বোঝানো যাক। টেলিভিশনে জনপ্রিয় জুটির মধ্যে অন্যতম হলো শঙ্খ ও মোহরের জুটি। বর্তমানে এদের ধারাবাহিক শেষ হয়ে জুটি ভেঙ্গেছে বেশ কয়েকদিন হয়ে গিয়েছে। এবার মোহর ধারাবাহিকের প্রধান চরিত্র মোহর অর্থাৎ অভিনেত্রী সোনামনি সাহাকে দেখা যাচ্ছে টেলিভিশনে অন্য একজনের সাথে জুটি বাঁধতে। তেমনি শঙ্খ অর্থাৎ অভিনেতা প্রতীক সেন কেও তাই। কিন্তু তাঁদের জুটি এভাবে ভেঙে যাওয়া মোটেই পছন্দ হয়নি দর্শকের। তাই তাঁরা তাঁদের অনুরাগীদের মন রাখতে প্রায়শই সোশ্যাল মিডিয়ায় ছবি তুলে পোস্ট করে থাকেন।

টেলিভিশনের পর্দায় ঠিক এরকমই একটি জনপ্রিয় জুটি হলো জবা পরম। “কে আপন কে পর” ধারাবাহিকের এই জুটি বেশ অনেকদিন ধরেই সিরিয়াল প্রেমীদের মনে নিজেদের জায়গা করে রেখেছিল। এ ধারাবাহিকে জবার চরিত্রে অভিনয় করেছিলেন অভিনেত্রী পল্লবী শর্মা। আবার পরমের চরিত্রে অভিনয় করেন অভিনেতা বিশ্বজিৎ ঘোষ। এদের দুজনের অনস্ক্রিন কেমিস্ট্রি এত ভাল ছিল যে দর্শক এদেরকে আজও ভুলতে পারেনি। এদিকে অভিনেতা বিশ্বজিৎ অর্থাৎ পরম, জবা পরমের জুটি ভেঙ্গে এখন তাঁকে দেখা যাচ্ছে জি বাংলার “খেলনা বাড়ি” ধারাবাহীকে অন্য একজনের সঙ্গে জুটি বাঁধবে। যা দর্শক মহল খুব একটা পছন্দ করছে না। তারা জবা পরম কে আবার একসাথে দেখতে চায় অনস্ক্রিনে।

যদিও জবা অর্থাৎ পল্লবী শর্মাকে এখনো পর্যন্ত কোনো নতুন কাজ করতে দেখা যায়নি। কিন্তু এবার দর্শকদের দাবি মেনে জবা পরমকে দেখা গেল এক ফ্রেমে। আসলে রিল লাইফে জবার ভাসুর অর্থাৎ অভিনেতা অভ্রজিত চক্রবর্তীর বিয়েতে উপস্থিত ছিলেন জবা পরম দুজনেই। গত ১৫ ই আগস্ট অভ্রজিত বিবাহ বন্ধনে বাধা পড়লেন টেলিভিশনের সহকারী পরিচালক রিনিকা সাহার সাথে। পল্লবী এবং বিশ্বজিৎকে অভ্রজিতের বিয়েতে একসাথে দেখে খুবই উৎসাহিত হয়েছেন দর্শক। এইদিন পল্লবী এবং বিশ্বজিৎ এর পাশাপাশি উপস্থিত ছিলেন টেলিভিশনের অন্য আরো অনেক তারকারা।

Back to top button