বাংলা সিরিয়াল

‘যার কাছে প্রার্থনা করেন তিনি ফেসবুক করেন তো..’, ফেসবুকে অভিনেত্রী ঐন্দ্রিলা শর্মা কে নিয়ে ঠাট্টা করায় কমেন্ট বক্সে অভিনেতা ঋত্বিক চক্রবর্তীকে ধুয়ে দিলেন নেটিজেনরা

এই মুহূর্তে সকলেই ভগবানের কাছে প্রার্থনা করে চলেছে অভিনেত্রী ঐন্দ্রিলা শর্মার জন্য। সকলেই অপেক্ষা করে আছেন একটা মিরাকেল এর জন্য। তবে এইসবের মাঝেই এলো খারাপ খবর। এই মুহূর্তে অভিনেত্রী হাওড়ার একটি নামী বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন। সেখানেই বুধবার হঠাৎ Cardiac Arrest হয় তার।

এরপর থেকে অবসর অবনতি শুরু হয়। তাই প্রত্যেকে এখন একটাই প্রার্থনা করছেন যাতে অভিনেত্রী খুব তাড়াতাড়ি সুস্থ হয়ে ফিরে আসেন। বর্তমানে প্রত্যেকেই সোশ্যাল মিডিয়ায় ঐন্দ্রিলার সুস্থতা কামনার জন্য প্রার্থনা করছেন। নানান ধরনের পোস্ট দেখা যাচ্ছে অভিনেত্রীর সুস্থতা কামনার জন্য। এরই মাঝে ঘটলে এক চাঞ্চল্যকর ঘটনা।

সম্প্রতি টলিউডের জনপ্রিয় অভিনেতা ঋত্বিক চক্রবর্তী নিজের ফেসবুক অ্যাকাউন্ট একটি পোস্ট শেয়ার করেন। যেখানে অভিনেত্রী ঐন্দ্রিলার জন্য প্রার্থনা করা নিয়ে রসিকতা করেছেন অভিনেতা এবং যার জন্য তাকে নেটিজেনদের চরম কটাক্ষের মুখে পড়তে হয়।

অভিনেতা লেখেন “অনেকেই দেখি নানা কারণে ফেসবুকে প্রার্থনা করেন। কিন্তু, যাঁরা কাছে প্রার্থনা করা হয়, তিনি ফেসবুক করেন তো?” আর অভিনেতার এই খোঁচা দিয়ে কথাবার্তা অনেক নেটিজেনরা পছন্দ করেননি। তীব্র সমালোচনা করেছেন অভিনেতার এই ধরনের পোস্ট নিয়ে। অনেকেই নানান ধরনের কমেন্ট করেছেন। এক কথায় সব রাগ ক্ষোভ কমেন্ট বক্সে উগরে দিয়েছেন নেটিজেনরা।

উল্লেখ্য গত কয়েকদিন ধরে আবারো সংক্রমিত হচ্ছিলেন অভিনেত্রী ঐন্দ্রিলা। বারবার করে জ্বর আসছিল তার। চিকিৎসাতে ঠিকমতো সাড়া দিচ্ছিলেন না। তার জন্য প্রেমিক সব্যসাচী ও সকলকে অনুরোধ করেছিলেন যাতে সবাই জন্য ভগবানের কাছে প্রার্থনা করেন একটা মিরাক্কেলের সম্ভাবনা যাতে থাকে।

আর অভিনেতার এই পোস্ট দেখে অনেকেই ঘাবড়ে গিয়েছিলেন। আর আজ বুধবার সকালেই অভিনেত্রীর হৃদরোগের কারণে চিকিৎসকরা জানিয়েছেন অভিনেত্রীর অবস্থা খুবই আশঙ্কাজনক।

আর সেই মুহূর্তে অভিনেতা ঋত্বিক এর এই পোস্ট দেখে এক ফেসবুক ব্যবহারকারী লেখেন, “দাদা, ঐন্দ্রিলা আর সব্যসাচীকে নিয়ে এই ধরনের খোঁটা না মারলেই চলছিল না? সুমনা চক্রবর্তীর মন্তব্য, “বিশ্বাসে মিলায় বস্তু।” সায়ন্তী সেনগুপ্ত লেখেন, “ঐন্দ্রিলার জন্যে প্রার্থনা করতে পোস্ট দেওয়া হচ্ছে। এক্ষেত্রে মানুষের বিশ্বাস কাজ করছে। ঐন্দ্রিলা ফেসবুক করলো কি না করলো কিছু যায় আসেনা।

সকলেই ওর সুস্থতা প্রার্থনা করছে।” পিয়ালি সরকারের কথায়, “বাহ, কি অসাধারণ হাস্যরসাত্মক পোস্ট! যদিও হাসি পেল না। এক কাজ করুন, এবার জোর করে কাতুকুতু দিয়ে হাসানোর চেষ্টা করুন। যদি তাতে কাজ হয়।” গার্গী চট্টোপাধ্যায় নামের ফেসবুক ইউজার লেখেন, ‘অনেক কিছুই হয়ত যুক্তিহীন। তবু যুক্তির বাইরেও কিছু আছে সেই বিশ্বাসেই হয়ত এসব করে থাকি আমরা। আর সম্মিলিত প্রার্থনা এবং শুভেচ্ছার একটা ভালো দিক নিশ্চয়ই আছে।”

Back to top button