বাংলা সিরিয়াল

সাহেব চিঠির বিয়েতে মালাবদল হচ্ছে ড্রাগন ফলের মালায়! রজনীগন্ধা বা গোলাপের বদলে এই অভিনব মালায় মালাবদল দেখে অবাক হয়ে যাচ্ছে ভক্তরা

স্টার জলসার জনপ্রিয় ধারাবাহিক সাহেবের চিঠির গল্প রীতিমতো জমে উঠেছে। তাই গত দুই সপ্তাহ ধরে টিআরপিও একটু একটু করে বেড়ে চলেছে। বর্তমানে সাহেব চিঠির বিয়ের ট্র্যাক আনা হয়েছে। সাহেবের মা চিঠির সাথে তার বিয়ে ঠিক করেছে। সাহেব শুধু তার মায়ের ইচ্ছায় সম্মতি জানিয়েছে যদিও সে জানে না তার পাত্রী এখনো অবধি কে? অন্যদিকে রাইমা ৩০ কোটি টাকার লোভে আবার সাহেবের সাথে ভালোবাসার নাটক করতে শুরু করেছে সাহেব যদিও রাইমার উদ্দেশ্য বুঝে গিয়ে রাইমাকে মুখের ওপর রিজেক্ট করেছে।‌‌তবে রাইমা ও ছেড়ে দেওয়ার পাত্রী নয়, বিয়ের মন্ডপে হাজির হয়েছে সে।

চিঠির মুখের পান পাতা ছুঁড়ে ফেলে সাহেবের সামনে দেখিয়ে দিয়েছে কে আসলে তার বিয়ের পাত্রী! চিঠি কে দেখে অবাক হয় সাহেব এমন সময় রাইমা সাহেবের বাবাকে নিয়ে বিয়ের মন্ডপে উপস্থিত হয়। শুরু হয় হাই ভোল্টেজ ড্রামা। সাহেবের একটি পা নেই সে কথা সাহেবের পরিবারের লোকজন যখন চিঠির যোগ্যতা নিয়ে প্রশ্ন তুলতে শুরু করে একের পর এক তখন চিঠির বাড়ির লোকজন আঙুল তুলে সাহেবের দিকে। তারা জানায় তারা তাদের মেয়েদের বিয়ের সম্বন্ধ নিয়ে সাহেবের বাড়ি যায় নি , সাহেবের মা এসেছিল এবং সম্পূর্ণ সত্য গোপন করে এই বিয়ে ঠিক করা হয়েছিল, যদিও চিঠি সব সত্য জানতো কিন্তু পরিবারের অন্য কেউই এ কথা জানতো না।

এরকম ঘটনা বর্তমানে ঘটলেও সাহেব চিঠির বিয়ে যে সুস্থভাবে সম্পন্ন হবে প্রোমোই তার প্রমাণ। কারণ ইতিমধ্যে যে প্রোমোর টেলিকাস্ট হয়েছে তাতে সাহেব চিঠির সুস্থ ভাবে বিয়ের ঘটনা দেখানো হয়েছে। কীভাবে এখন বিয়ে হয় সেটাই দেখার আগ্রহে বসে আছে ভক্তরা যেখানে সাহেব নিজে ভাবছে চিঠি তাকে দয়া করছে এবং সে এই বিয়ে না করার কথা জানিয়েছে। এইসবের মাঝে একটি ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়েছে যেখানে দেখা যাচ্ছে সাহেব চিঠির বিয়ের প্রোমতে তাদের দুজনের গলার মালাটি ঠিক কীসের!

একজন নেটিজেন এই মালার ছবি দিয়ে ক্যাপশনে লিখেছেন, “ এক্রোপলিশ এতো বড়লোক যে ড্রাগন ফলের মালা গেঁথে বিয়ে দিচ্ছে….!!! ভাবা যায়”

Back to top button