বাংলা সিরিয়াল

‘গায়ে পারফিউম লাগিয়ে চুরি করছে চোর, গাঁজাখুরি সমস্ত গল্প দিয়ে সাজানো হচ্ছে ধারাবাহিক’, জি বাংলার ‘অপরাজিতা অপু’ ধারাবাহিক নিয়ে শুরু হলো দেদার ট্রোলিং

বর্তমানে অবসর সময় কাটানোর জন্য সবথেকে মোক্ষম জিনিস হল ধারাবাহিক। আর প্রতিটি ধারাবাহিকই দর্শকদের অত্যন্ত প্রিয়। স্টার জলসা, জি বাংলা মিলিয়ে প্রায় সবকটি ধারাবাহিক দেখেন দর্শকেরা। কেউ কেউ তো আবার ধারাবাহিকের রিপিট টেলিকাস্টও দেখে নেন। এই ধারাবাহিক গুলির মধ্যে অন্যতম একটি জনপ্রিয় ধারাবাহিক হলো জি বাংলার অপরাজিতা অপু। একটি মেয়ের চাকরি করে নিজের স্বপ্ন পূরণ করার গল্প নিয়েই তৈরি হয়েছে এই ধারাবাহিক। ধারাবাহিকে আমরা অপুর চরিত্রে অভিনয় করতে দেখতে পাচ্ছি নবাগতা অভিনেত্রী সুস্মিতা দে কে।

একাধারে এই ধারাবাহিক যেমন দর্শকদের অত্যন্ত পছন্দের আবার ধারাবাহিকের কিছু কিছু ঘটনা ঘিরে শুরু হয় ট্রোল সোশ্যাল মিডিয়া জুড়ে, তৈরি হয় নানা ধরনের মিম। অভিনেত্রী সুস্মিতা দে অভিনয়ের পাশাপাশি সোশ্যাল মিডিয়াতেও অ্যাক্টিভ থাকেন। তাই তাকে এই ধরনের ট্রোল এর শিকার হতে হয় মাঝেমধ্যে। ধারাবাহিকে বিভিন্ন অবাস্তব ঘটনার মাধ্যমে নানা সমালোচনার মুখে পড়তে হয় সকলকে। যেমন বর্তমানের পর্বগুলিতে দেখানো হয়েছে অপু ইতিমধ্যেই এক গ্রামের বিডিও অফিসার হয়েছে এবং অফিসার হবার সুবাদে নিজের স্বামীর বিরুদ্ধে সমস্ত প্রমাণ জোগাড় করে তাকে জেল থেকে ছাড়িয়ে নিয়েছে সে, অন্যদিকে তার জামাইবাবুর বিরুদ্ধে সমস্ত স্বাক্ষী প্রমান সহ জোগাড় করে তাকে পুলিশের হাতে তুলে দিয়েছে সে। আর এই ঘটনায় অপুর নিজের দিদি তাকে ভুল বোঝে এবং এই নিয়েই চলছে বর্তমানে গল্পের টানটান পর্ব।

এর পরের পর্বগুলোতে দেখানো হয় যে জেল থেকে বেরোনোর জন্য নানারকম চেষ্টা করছে অপুর জামাইবাবু দ্বৈপায়ন। থানায় বসেই শ্বাসকষ্টের নাটক করে জেলে কেরোসিন তেল ঢেলে আগুন লাগিয়ে পালিয়ে আসে সে এবং থানায় উপস্থিত সকল অফিসাররাই তাকে মৃত ভাবে। কিন্তু এসবের মাঝে হঠাৎ একদিন নিজের বাড়িতে চোরের মতো প্রবেশ করে এবং সেই ঘটনা বুঝতে পেরে যায় দিপু এবং অপু দুজনেই জানায় জামাইবাবুর যে পারফিউম ব্যবহার করে তার গন্ধ বাতাসে ভেসে বেড়াচ্ছিল।

বাড়িতে দ্বৈপায়নের শ্রাদ্ধশান্তির দিনকে অপু এবং দিপু দুজনেই বাধা দেয় সেই কাজে। কারণ তারা বারবার বলার চেষ্টা করে যে দ্বৈপায়ন অর্থাৎ দিপুর দাদা মরেনি জীবিত আছে। আর তার প্রমাণ হিসেবে দুজনে সকলকে জানাই যে আগের দিন রাতে তারা বাড়িতে দ্বৈপায়ন এর ব্যবহার করা পারফিউমের গন্ধ পেয়েছে। সম্প্রতি এই গল্প নিয়েই শুরু হয়েছে দেদার ট্রোলিং। অবাস্তব এই সমস্ত ঘটনা নিয়ে হাসির রোল উঠেছে সোশ্যাল মিডিয়া জুড়ে।

Back to top button