বাংলা সিরিয়াল

বউয়ের অভিমান ভাঙাতে, বউ কে বাড়ি ফিরিয়ে নিয়ে যেতে শ্বশুরবাড়িতে হাজির হয় ঋদ্ধিমান, শেষ পর্যন্ত কি খড়ি ঋদ্ধিমানের হাত ধরে ফিরবে সিংহ রায় বাড়িতে?

বর্তমানে বাংলা টপ ধারাবাহিক হল স্টার জলসার গাঁটছাড়া ধারাবাহিক। এই ধারাবাহিকে প্রতিদিনই নতুন নতুন চমক অপেক্ষা করে থাকে দর্শকদের জন্য। বর্তমানে ধারাবাহিকে চলছে দুর্দান্ত পর্ব। সিংহ রায় বাড়িতে ইতিমধ্যে সকলে দ্যুতির মিথ্যে প্রেগন্যান্সির খবর জেনে গিয়েছে। আর এই সত্যিটা জানার পর থেকে খড়ি কে নানান ভাবে অপমান করেছে সিংহ রায় বাড়ির প্রত্যেকে। তাই খড়ি নিজেকে নির্দোষ প্রমাণ করে নিজের আত্মসম্মান এর কথা ভেবেই বেরিয়ে এসেছে সিংহ রায় বাড়ি থেকে। এমনকি দাদু পিসিমণি কুনাল কারো কথাই শোনেনি খড়ি এবারে। খড়ির দাবি যেখানে বাড়ির বউ এর কোনো সম্মান নেই সেখানে সে আর এত অপমান নিয়ে থাকতে পারবেনা তাই সে বাড়ি ছেড়ে বেরিয়ে আসে। কিন্তু অন্যদিকে খড়ির অনুপস্থিতি বারবার অনুভব করছে ঋদ্ধিমান।

এদিকে খড়ি সিংহ রায় বাড়ি থেকে বেরিয়ে সোজা নিজের বাপের বাড়িতে গিয়ে হাজির হয় এবং সেখানে নিজের দশকর্মা ভান্ডার এর দোকানে নিজেকে কাজে ব্যস্ত করে তোলে। একে মাঝরাতে ঋদ্ধি ঘড়ির কাছে জল চেয়ে বসে এবং পরমুহূর্তেই সে অনুভব করে যে খড়ি নেই আর তখনই মাঝরাতে দাদু ঋদ্ধিমানের ঘরে এসে ঋদ্ধিমান কে বোঝায় যাতে সে খড়ি কে ফিরিয়ে আনে। অবশেষে দাদুর কথা রাখতে এবং দাদুর কথা বুঝতে পেরে পরের দিনই শ্বশুর বাড়িতে যায় খড়ি কে ফিরিয়ে আনতে যায় ঋদ্ধিমান।

যাওয়ার পথে মাঝ রাস্তাতেই খড়ির সঙ্গে দেখা হয়। কিন্তু খড়ি ঋদ্ধিমানের ডাকে সাড়া না দিয়ে চলে যায়। এরপরে ঋদ্ধিমান গিয়ে হাজির হয় সোজা খড়ি দের দশকর্মা ভান্ডার এবং সেখানে আবারও ঋদ্ধির সঙ্গে ধাক্কা লাগে খড়ির এবং ঋদ্ধি কে সেখানে দেখে বেশ অবাক হয় খড়ি। সেখানে গিয়ে ঋদ্ধিমান খড়ি কে বাড়ি ফিরে যাওয়ার কথা বলে। কিন্তু খড়ি কিছুতেই রাজী হয়না সে স্পষ্ট জানিয়ে দেয় এখানে অযথাই অপেক্ষা করবে খড়ি ফিরবে না। কিন্তু ঋদ্ধি ও জানিয়ে দেয় যে দাদুর কথা রাখতে সে খড়ি কে বাড়িতে নিয়ে ফিরবে আজকে। কিন্তু খড়ি আর ঋদ্ধির সঙ্গে ফিরবেনা। তবে কি হতে চলেছে আগামী পর্বে সেটাই দেখার জন্য অপেক্ষা করে রয়েছে দর্শকেরা।

Back to top button