বাংলা সিরিয়াল

জি বাংলার মঞ্চে এবার এলেন তেজপাতা দিদি! অভাবের সংসারে কীভাবে ব্যবসা করে হাল ফেরালেন তিনি, সেই গল্প বলতেই দিদির মঞ্চে আসা তার!

জি বাংলার জনপ্রিয় রিয়েলিটি শো হলো দিদি নাম্বার ওয়ান, এই মঞ্চ নারীদের জন্য অনুপ্রেরণার একটি অন্যতম জায়গা। এই রিয়েলিটি শোয়ের সঞ্চালিকা রচনা ব্যানার্জী একবার নিজের মুখে বলেছিলেন যে এই মঞ্চে দাঁড়িয়ে দিদিদের দুঃখ কষ্টের গল্প শুনে শুনে তিনি নিজে অনেক কিছু শিখেছেন। যেমন রচনা ব্যানার্জী এই শো এর মঞ্চে দিদিদের গল্প শুনে বদলে গিয়েছেন তেমনি এই রিয়েলিটি শো দেখতে দেখতে দর্শকরা‌ও তাদের জীবনের লড়াই করার তাগিদ খুঁজে পেয়েছেন।

এই মঞ্চে তা‌ই দিদিরা‌ আসেন তাদের জীবনের গল্প শোনাতে। কত রকমের স্ট্রাগল করেছেন সেই সব গল্প বলেন এই মঞ্চে এসে সবাই। কেউ বাঘের সাথে লড়াই করেছে, কেউ বা লড়াই করেছে মানুষরূপী পশুর সাথে। কারোর লড়াই শারীরিক প্রতিবন্ধকতা কে জয় করার কারোর লড়াই মানসিক প্রতিকূল পরিস্থিতি পেরিয়ে এগিয়ে যাওয়ার। অভাবের সংসারে কত মানুষ কত রকম ভাবে, ব্যবসা শুরু করে নিজেদের জীবন শুরু করেছে সেই গল্প যেমন বলেন, তেমনি নিজের জীবনের ভুল সিদ্ধান্ত থেকে অনেক কঠিন অভিজ্ঞতা লাভ করে নতুন করে জীবন শুরু করার গল্প‌ও মানুষ শোনায় এই মঞ্চে এসে। সম্প্রতি এই মঞ্চে এসেছেন তেজপাতা দিদি।

হ্যাঁ,অভাবের সংসারে হাল ধরতে বনগাঁর মাধবী বিশ্বাস তেজপাতার ব্যবসা শুরু করেন। দিদি নাম্বার ওয়ানের মঞ্চে এসে মাধবী বলেন আগে তেজপাতা বস্তা হিসেবে কিনে আনতাম, এখন ছোটখাটো ব্যবসা করেছি। এইভাবেই তিনি যেমন নিজের সংসারের হাল ধরেছেন তেমনি অনেককেই এই তেজপাতা ব্যবসাতে শামিল করেছেন। নিজের জন্য রোজগার খোলার পাশাপাশি আরো দশ জনের জন্য রোজগারের পথ খুলে দিয়ে তাদের কাছে অনুপ্রেরণা হয়ে উঠেছেন। বনগাঁর এই তেজপাতা দিদি ‘দিদি নাম্বার ওয়ান’ এর মঞ্চে আসছেন তার জীবনের গল্প শোনাতে।

Back to top button