বাংলা সিরিয়াল

মায়ের জন্মদিনের দিনই মা এর কাছে হাত জোড় করে সমস্ত অন্যায়ের ক্ষমা চেয়ে নিলেন অভিনেত্রী শ্রুতি দাস! মায়ের জন্মদিনে কেন একথা শ্রুতির মুখে?

বর্তমানে অভিনেত্রী শ্রুতি দাস আমাদের কাছে বেশ জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে। টেলিভিশনে ছোটপর্দায় শ্রুতি দাস ইতিমধ্যেই নিজের জায়গা বানিয়ে নিয়েছেন। এছাড়া সোশ্যাল মিডিয়াতে দারুন অ্যাক্টিভ এই অভিনেত্রী মাঝেমধ্যেই নিজের জীবনের বেশ কিছু ঘটনা দর্শকদের সঙ্গে শেয়ার করেছেন। নিজের জন্মদিন থেকে প্রেমিকের জন্মদিন যে কোন বিশেষ দিন কেই সোশ্যাল মিডিয়ায় দর্শকের সঙ্গে ভাগ করে নেন তিনি।

২৫ শে অক্টোবর ছিল অভিনেত্রীর মায়ের জন্মদিন। শ্রুতির মায়ের নাম শতরুপা দাস মায়ের জন্মদিনে শ্রুতি সোশ্যাল মিডিয়া বিশেষ পোস্ট করে। এর আগেও বহুবার শ্রুতি বলেছেন মা তার সবথেকে প্রিয় বন্ধু মাকে যেমন কিনি সবথেকে বেশি ভয় পান আবার মায়ের সাথে সমস্ত কথা ভাগ করে নেন তিনি। তবে মায়ের জন্মদিনের দিন মাকে মিস করার কথা জানালেন অভিনেত্রী।

‘তোর এই হাসির জন্য সব করতেও পারি সব ছাড়তেও পারি… (অন্যায় আবদার করবি না) কারণ আমার মতো তোকে কেউ ভালবাসতে পারবে না…।’ এর পাশাপাশি শ্রুতির আফসোসও রয়েছে। মায়ের জীবনের এই বিশেষ দিনে শ্রুতি মায়ের জন্য তেমন কিছু আয়োজন করতে পারেনি তাই প্রকাশ্যেই মায়ের কাছে ক্ষমা চেয়ে নেন তিনি। তিনি লিখেছেন, ‘কিছুই করতে পারলাম না আজ সেভাবে,সব তোলা থাক। ক্ষমা করিস সব ভুলের জন্য …’।

এর পাশাপাশি মায়ের কেক কাটার ছবি পোস্ট করেন তিনি। বর্তমানে ধারাবাহিকের কাজের চাপ রয়েছে শ্রুতির ওপর, দেশের মাটি ধারাবাহিক আর কয়েক দিনের মধ্যেই বন্ধ হয়ে যেতে চলেছে যার ফলে কাজের চাপ রয়েছে অভিনেত্রীর উপরে। এর আগে সোশ্যাল মিডিয়ায় শ্রুতি জানিয়েছিলেন তার মা প্রথমে স্বর্ণেন্দু ওকে কিছুতেই মেনে নিতে রাজি হননি মেয়ের প্রেমিক হিসেবে তাকে একেবারেই অপছন্দ ছিল শতরূপা দেবীর। টানা তিন মাস মা-মেয়ের কথা বলা বন্ধ ছিল তবে বর্তমানে শ্রুতির তুলনায় স্বর্ণেন্দু কে বেশি ভালোবাসে শতরূপা দেবী, জামাই এখন তার নয়নের মনি। জামাইয়ের শরীর স্বাস্থ্য নিয়ম বেশ চিন্তিত তিনি। মাঝেমধ্যে শ্রুতি এবং স্বর্ণেন্দু মাকে নিয়ে ঘুরতে বেরিয়ে পড়েন।

সম্প্রতি শেষ হতে চলেছে স্টার জলসার ‘দেশের মাটি’ ধারাবাহিক তার পরিবর্তে আসতে চলেছে নতুন ধারাবাহিক খু’কুমণি হোম ডেলিভারি’। এত তাড়াতাড়ি দেশের মাটি ধারাবাহিক কেন বন্ধ হয়ে যাচ্ছে তা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছে। দর্শকেরা জানা গিয়েছে টিআরপির একেবারেই কমে গিয়েছে এই ধারাবাহিকের যার ফলে কর্তৃপক্ষ বাধ্য হচ্ছে ধারাবাহিক বন্ধ করে দিতে।

Facebook Notice for EU! You need to login to view and post FB Comments!
Back to top button