বাংলা সিরিয়াল

‘মাথায় সিঁদুর নিয়ে গায়ে হলুদ বাংলা ধারাবাহিকেই সম্ভব’! কনের বেশে মিতুলের মাথায় সিঁদুর নিয়ে ট্রোলড হলো ‘খেলনা বাড়ি’

কথায় বলে গল্পের গরু গাছে ওঠে, বাংলা ধারাবাহিকের ক্ষেত্রে এটা অক্ষরে অক্ষরে সত্য। টিআরপি বাড়ানোর জন্য এমন কিছু কিছু জিনিস ধারাবাহিকে দেখানো হয় যা নিয়ে রীতিমতো ট্রোলিং করেন মানুষজন। ঠিক যেমন ‘খেলনা বাড়ি’ ধারাবাহিকের একটি দৃশ্য নিয়ে মানুষজন হেসে লুটোপুটি খাচ্ছেন। এই ধারাবাহিকটি মিতুল নামে একটি মেয়ের পুতুলের ব্যবসা করাকে নিয়ে তৈরি হয়েছে। আস্তে আস্তে ধারাবাহিকটি মানুষের মন জয় করে নিচ্ছে, টি আর পি রেটিংয়েও ভালো ফল করেছে এই ধারাবাহিক।

মিতুল কে বাঁচানোর জন্য ইন্দ্র মিতুলের সিঁথিতে সিঁদুর দিয়ে তাকে বাড়িতে নিয়ে এসেছিল, কিন্তু তারপর দেখা গেল বাড়ির লোক সম্পর্কটিকে মেনে নিয়ে ধুমধাম করে তাদের বিয়ের আয়োজন করেছে, সম্প্রতি বিয়ের পর্ব দেখানো হচ্ছে। এই ধারাবাহিকে দেখানো হচ্ছে যে, মিতুল আর ইন্দ্রর গায়ে হলুদ হবে। বিয়ের একটি অনুষ্ঠানে হলো গায়ে হলুদ, গায়ে হলুদের পর বিয়ের অন্যান্য সমস্ত অনুষ্ঠানগুলি শুরু হয়, তাই বিয়ের ক্ষেত্রে এই আচারটি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। এই ধারাবাহিকে মিতুল আর ইন্দ্রর গায়ে হলুদের পর্বে দেখা যায় যে মিতুলের কপালে চওড়া করে সিঁদুর পরা আছে যা সকলের খুব চোখে লেগেছে।

গায়ে হলুদের সময় বিয়ের কনের মাথায় সিঁদুর থাকবে এটা খুব একটা স্বাভাবিক ঘটনা নয়, কারণ গাত্রহরিদ্রা দিনে হয় এরপর রাতে শুভদৃষ্টি, সাত পাকের পর সিঁদুর দান হলে তবেই কনের মাথায় সিঁদুর ওঠে এবং তারপর‌ই একজন সিঁদুর পরে থাকে। এখন কথাটা হচ্ছে যে, বিয়েটা যখন প্রথম থেকে হচ্ছে, ভালো মতো নিয়ম মেনে হচ্ছে, তখন গায়ে হলুদের পর্বে সিঁদুরটা না পরলেই পারতো, কারণ বিষয়টা অত্যন্ত দৃষ্টিকটু লাগে। তাই এই নিয়ে হেসে লুটোপুটি যাচ্ছেন সকলে। সকলেই বলছেন একমাথা সিঁদুর পরে কনের গায়ে হলুদ হচ্ছে এ আবার কেমন কথা? কেউ কেউ আরো একধাপ এগিয়ে গিয়ে বলছেন, একমাত্র বাংলা ধারাবাহিকেই এইসব সম্ভব।

তবে এটাও তো সত্য ঘটনা যে সাধারণভাবে কোন বাড়িতে সচরাচর স্বামী-স্ত্রীর বারবার বিয়ে হয় না, যেটা বাংলা ধারাবাহিকেই হয়। বাংলা ধারাবাহিকে খুব কম করে হলেও নায়ক-নায়িকার দুবার বিয়ে হবেই, কোন কোন ধারাবাহিকে এই বিয়ের সংখ্যাটা আবার বেড়ে যায়, টিআরপি বাঁচানোর তাগিদে, তবে তা নিয়ে ট্রোলিং‌ও যে হয় না তাও কিন্তু নয়!

Back to top button