বাংলা সিরিয়াল

প্রতিদিন ৫০ কিলোমিটার সাইকেল চালিয়ে মাছ বিক্রি করেন হুগলির “মাছ দিদি”! Didi No. 1 – এর মঞ্চে নিজের জীবনযুদ্ধের কথা শোনাতে আসছেন, হুগলির “মাছ দিদি”

দিদি নাম্বার ওয়ান হলো জি বাংলার অত্যন্ত জনপ্রিয় একটি রিয়েলিটি শো। বিভিন্ন জায়গা থেকে লড়াকু সংগ্রামী মহিলারা এখানে আসেন ও তারা তাদের জীবনের গল্প বলেন। কীভাবে জীবনের চড়াই উৎরায় পেরিয়ে তারা জয়ী হয়েছেন সেইসব গল্প বলেন আর তারা সকলের কাছে অনুপ্রেরণার জায়গা হয়ে যান। রচনা ব্যানার্জীর সঞ্চালনা গুনে এই শো এমনিতেই অত্যন্ত পপুলার। কিছুদিন আগে এই মঞ্চে এসেছিলেন স্কুটি দিদি ও মোমো দিদি। কেউ স্কুটি চালিয়ে রোজগার করেন তো কেউ মোমো বিক্রি করে আর ও কিছুদিন আগে এই মঞ্চে এসেছিলেন তেজপাতা দিদি।

অভাবের সংসারে হাল ধরতে বনগাঁর মাধবী দিদি শুরু করেন তেজপাতার ব্যবসা সেই থেকে তার নাম হয়ে যায় তেজপাতা দিদি। সম্প্রতি এই মঞ্চে আসছেন মাছ দিদি। হুগলির মিতা দিও আরেক লড়াকু মহিলা। তিনি মাছ দিদি নামে পরিচিত। কারণ তার রুজি রোজগার হলো মাছ। প্রতিদিন পঞ্চাশ কিলোমিটার সাইকেল চালিয়ে তিনি মাছ বিক্রি করেন। স্বামীকে হারিয়ে এই ব্যবসা শুরু করেন তিনি। অভাবের সংসারে হাল ধরতে মাছ বিক্রির পথ বেছে নেন তিনি।

দুই সন্তানকে নিয়ে তার সংসার। একলা মানুষ লড়াই করে নিজের সংসারকে দাঁড় করিয়েছেন তিনি। স্বামীকে হারানোর পরও ভেঙ্গে পড়েন নি, মনোবল শক্ত করে এগিয়ে গিয়েছেন দৈনন্দিন লড়াইয়ের কাজে। প্রতিদিনের লড়াইয়ের মধ্যে মাছ বিক্রির এই পেশা কীভাবে বদলে দিলো হুগলির মিতা দিদির জীবন সেই গল্প বলতেই দিদি নাম্বার ওয়ান এর মঞ্চে আসছেন তিনি। এই প্রোমো সোশ্যাল মিডিয়ায় আসতেই মানুষজন প্রচুর প্রশংসা করতে শুরু করেন। আসলে এরকম লড়াকু মহিলার জীবন দেখতে দেখতে মানুষ অনুপ্রাণিত হয় তাই তাদের জীবন কাহিনী দেখতে ভালো লাগে সবার।

Back to top button