বাংলা সিরিয়াল

‘ফুলঝুরির অপারেশন শুনে ফুলঝুরি জীবনের সব হয়ে গেলো লালনের! তিতিরের সাথে বিয়ে ভেঙে ফিরে এলো লালন!লীনা গাঙ্গুলী কি কাণ্ডই না ঘটালেন’-লালনের অতীত মনে পরে যাওয়া নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় পুনরায় ট্রোল লালন চরিত্র!

স্টার জলসার জনপ্রিয় ধারাবাহিক ধুলোকনাতে দেখা যাচ্ছিলো যে, স্মৃতিভ্রষ্ট লালন স্মৃতি ফিরে পাওয়ার পরও তিতিরকে ভুলতে পারছিল না। তার মনের মধ্যে তিতিরদের বাড়ির ভালো ভালো স্মৃতি গুলো মনে ছিলো, অতীতের সবটা তার মনে পড়েনি, তাই সে তিতিরের কাছে চলে গিয়েছিল। ফুলঝুরিও তাকে ডিভোর্স দিয়ে দেয়, এরপর তিতিরের সাথে লালনের বিয়ে ঠিক হয়। ‌ ফুলঝুরির জীবনে ফিরে আসে অংকুর। কিন্তু এর মধ্যেই জানা যায় যে ফুলঝুরির পেটে একটা টিউমার হয়েছে।

ফুলঝুরির এই টিউমার অপারেশন যেদিন সেই দিনই লালনের গায়ে হলুদ। এই গায়ে হলুদের সময় ডাক্তারবাবুর ফোনে ফুলঝুরির বৌদি কমলিনি ফোন করে ফুলের বিষয়ে সবটা জানায়। এরপর ডাক্তারবাবু সবটা লালন এবং তিতিরকে বললে, লালন জানায় যে, তার পূর্ব স্মৃতি মনে পড়েছে এবং সে বিয়ের বাড়ি থেকে চলে আসে। হাসপাতালে এসে লালন জানায় যে,“আমি এতদিন একটা ঘোরের মধ্যে ছিলাম,এখন আমার ঘোর কেটে গেছে।আমার জীবনের একমাত্র সত্য ফুলঝুরি।”

এই এপিসোড দেখার পরে একজন নেটিজেন সোশ্যাল মিডিয়ায় লিখেছেন,এসেছে লালন…. বাপরে শেষ পর্যন্ত সেই আগের লালন কে দেখলাম সেই জোর সেই দৃঢ়তা সেই ভালোবাসা…. উদ্ধার করলো বাবা শেষ অবধি
এই রূপ টা আবার দেখব আশা করিনি
বলেছিলাম না ফুল মারা যেতে পারে শুনলে মনে পড়ে যাবে সব অতীত ও sorry ওটা তো লালনের পুনর্জন্ম
কি জ্বালান টাই না জ্বালালো
শেষ অবধি ফিরল…
কিন্তু বিষয়টা হলো ফুলের কি জ্ঞান ফিরবে না bed এই মারা যাবে…
ভাই সাত সমুদ্র পার করে এলো অবশেষে লালন সেটা দেখে যাক অন্তত
তবে আজ ডাক্তার ফাটিয়ে দিয়েছে
বউ, মেয়ে, লালন লালনের দিদি সব গুলোকে জব্দ করে দিয়েছে ধমক দিয়ে
এবার গল্প এগিয়েছে ufffffffff
#ধুলোকণা আর 3 দিন বাকি
Happy Ending হবে আশা করছি”

আরেকজন আবার লিখেছেন,“
আজকে ধূলোকণা মিস করবেন?

দেখুন না লীনা গঙ্গোপাধ্যায় কি কান্ড করে দিয়েছে”

আরেকজন আবার লিখেছেন,
“তিতিরের সাথে বিয়ে ভেঙ্গে লালন ফুলঝুড়ির কাছে চলে আসছে এখন ফুলঝুড়িই লালনের সব”

Back to top button