বাংলা সিরিয়াল

কতগুলি সপ্তাহে বেঙ্গল টপার আর তার মধ্যে কতগুলি সপ্তাহ বিয়ের সপ্তাহ চলেছে? মিঠাই থেকে ধুলোকনা হিসেব রাখছেন নেটিজেনরা

বাংলা ধারাবাহিক নিয়ে প্রিয় ধারাবাহিকের দর্শকদের মধ্যে ফেসবুক ইনস্টাগ্রামে তর্ক বিতর্ক সবসময়ই চলে। ধারাবাহিকের গ্রুপগুলিতে নিজের পছন্দের ধারাবাহিকে শ্রেষ্ঠ প্রমান করার জন্য দর্শকেরা তুলনামূলক পদ্ধতিতে অঙ্কও কষে দেখাতে পারেন। টিআরপি লিস্টে ‘মিঠাই’ অনেকদিন আগেই তলানিতে ঠেকেছে। তবে টানা ৫৬ বার শীর্ষে থাকা ধারাবাহিকে কি দর্শকরা এত সহজে ভোলে!

‘ধুলোকণা’ এক নম্বরে থাকার পর অন্যান্য ধারাবাহিকের ভক্তরা মজা করে বলেন, “এই সিরিয়াল তখনই টপ করে যখন এখানে বিয়ে দেখানো হয়”। ব্যাস শুরু হয়ে গেল সিরিয়াল যুদ্ধ। ‘ধুলোকণা’র দর্শকরা এই বক্তব্যকে কোনোভাবেই মেনে নেননি, তারা বলেন তাদের পছন্দের সিরিয়ালে বিয়ে না দেখালেও বেঙ্গল টপ করতে পারে, যেখানে ‘মিঠাই’তে বারংবার বিয়ে দেখিয়েই এতবার বেঙ্গল টপার হয়েছে।

কথাটি একদমই হজম হয়নি এক ‘মিঠাই’ প্রেমীর। অঙ্ক কাকে বলে তার দেওয়া এক ছবিতেই বোঝা যায়। তিনি বলেন ধুলোকণা ছয়’বার টপ করেছে যেখানে চারবারই বিয়ে দেখানো হয়েছে, যেখানে মিঠাইয়ে ৫৬ বারের মধ্যে কেবল দু’বারই বিয়ে দেখানো হয়েছে যেটি টপ করেছে। আবার ব্র্যাকেটে এও লিখেছেন যে মিঠাই, স্যান্ডি, নীপা ও সমরেশের বিয়েতে মিঠাই টিআরপি লিস্টের শীর্ষে থাকতে পারেনি।

এই অঙ্কে এটাই প্রমাণিত হল শেষে যে ধুলোকণা ৬৬% বার বিয়ে দেখিয়ে টপ করেছে, যেখানে মিঠাইতে মাত্র ৩% বার (পরে নিজের অঙ্কের ভুল নিজেই সংশোধন করে লিখেছেন ৫%) বিয়ে দেখিয়ে টপ করেছে। অনেকে ওনার অঙ্কের সাথে সহমতও পোষণ করেছেন। ধুলোকণার দর্শকরা নিজেদের পছন্দের সিরিয়ালের শ্রেষ্ঠত্ব প্রমাণ করতে গিয়ে বিফল তো হলেনই, সাথে সাথে মিঠাই প্রেমীদের থেকে অনেক অনেক সত্যি কথাও শুনলেন, যেগুলি তাদের কাছে ছিল তেঁতো সত্য।

Back to top button