বাংলা সিরিয়াল

‘উড়ন্ত হলুদ উড়ন্ত সিঁদুর এখন অতীত! ভিকো ক্রিম দিয়ে গায়ে হলুদ হচ্ছে এখন’লক্ষ্মী কাকিমা সুপারস্টার দুলালের গায়ে হলুদ দেখে বলছেন নেটিজেনরা!

জি বাংলার জনপ্রিয় ধারাবাহিক লক্ষ্মী কাকীমা সুপারস্টার। এই ধারাবাহিকে এমন একজন মানুষকে দেখানো হয় জিনিস সবদিক থেকে স্মার্ট, তিনি হলেন লক্ষ্মী কাকিমা। লক্ষ্মী কাকিমা যেমন সংসার সামলান যেমন ব্যবসা সামলান তেমনিভাবে পরিবারে আসা কোন বিপদেও তিনি ঝাঁপিয়ে পড়েন। সবদিক থেকে পরিবারকে আগলে রাখেন তিনি, এই কারণে তাকে লক্ষ্মী কাকীমা সুপারস্টার বলা হয়।

এই ধারাবাহিকে আরো একজন আকর্ষণীয় চরিত্র হলো হংসিনী, তাকে লক্ষী কাকিমা হাঁস বলে ডাকে। এই হংসিনী একবার বিয়ে করবে না বলে লক্ষ্মী কাকিমার ছেলে দুলালের সাথে নকল বিয়ে করে এবং লক্ষ্মী কাকিমার বাড়িতে গিয়ে ওঠে এবং সেখানে সকল বিপদে আপদে লক্ষ্মী কাকিমার পাশে থেকে সকলের মন জয় করে নেয় এরপর একদিন আসল সত্যি টি প্রকাশ পায় যে দুলাল আর হাঁসের বিয়ে হয়নি। এতে লক্ষী কাকিমা ভীষণ ভেঙে পড়ে, কষ্ট পায়। কিন্তু এর পরেও হাঁস লক্ষ্মী কাকিমার বাড়িতে মেয়ে হয়ে থেকে যায়।

তারপর নানা ঘটনা পর্ব দেখানো হয় যেমন লক্ষী ভান্ডারে আগুন লাগানোর মতো বিষয় দেখানো হয় যে পুরোটাই করেছিলো হংসিনীর বাবা। এরপর লক্ষ্মী কাকিমা সিদ্ধান্ত নেয় যে সে তার ছেলে দুলাল ও হংসিনীর বিয়ে দেবে সত্যি করে ‌ এবং যেহেতু হংসিনী বাপের বাড়ি যাবে না, তাই নিজের বাড়ি থেকেই হংসিনী আর দুলালের বিয়ে দেওয়ার বন্দোবস্ত করেন লক্ষ্মী কাকিমা।

বর্তমানে লক্ষ্মী কাকিমা সুপারস্টারে এই বিয়ের পর্ব দেখানো হচ্ছে। সম্প্রতি সেখানে গায়ে হলুদ দেখানো হচ্ছে গায়ে হলুদে দেখা যাচ্ছে যে দুলালের গালে শুকনো হলুদের পাশাপাশি ক্রিমের মত কিছু একটা লেগে আছে, যা নিয়ে কিছু মানুষ হাসাহাসি করছেন।

নেটিজেনদের এক অংশের মানুষ যেমন সোশ্যাল মিডিয়ায় সরাসরি লিখেছেন, “বাটা হলুদ এবং ভিকো ক্রিম একসাথে ইউজ করছে সুশান্ত কাকু গায়ে হলুদে, লক্ষ্মী কাকিমাতে”

Back to top button