ভারতকে দমিয়ে রাখতে অরুণাচলের কাছে রাতারাতি তিনটি গ্রাম গড়ে ফেললো চীন

ভারত বন্ধুত্বপূর্ণ অবস্থান বজায় রাখলেও বারবার নিজের প্রতিশ্রুতি থেকে সরছে চীন। সম্প্রতি স্যাটেলাইট ইমেজে দেখা যাচ্ছে অরুণাচল প্রদেশের চুপিসারে তিনটি গ্রাম স্থাপন করে ফেলেছে চীন।এবার ভারতের অরুণাচল প্রদেশের কাছে অন্তত তিন গ্রাম তৈরি করেছে চীন। ভারতকে দমাতেই চীনের এই নতুন কৌশল বলে ধারনা বিশেষজ্ঞদের। বুমলাপাস থেকে ৫ কিলোমিটার দূরে ভারত, চীন, ভুটান সীমান্তের কাছেই এই গ্রামগুলি অবস্থান করছে।

ওই রাজ্যে সীমান্ত নিয়ে বিরোধীতা করে আসছে চীন। এর মধ্যে নতুন করে তিন গ্রাম গড়ে তোলায় ওই অঞ্চলে চীনের যে দাবি তা আরো জোরদার হলো।এতদিন পর্যন্ত লাদাখ সীমান্তে ভারত চীন সেনার মধ্যে উত্তেজনা বজায় ছিল। কিন্তু বারে বারে আরো আগ্রাসী হয়ে উঠছে পিপলস লিবারেশন আর্মি। ভারতের অজান্তেই অরুণাচল প্রদেশে গ্রাম গড়ে তোলা অত্যন্ত তাৎপর্যপূর্ণ বলে মনে করছে বিশেষজ্ঞ মহলের একাংশ।

সূত্রের খবর, উপগ্রহ চিত্রে ধরা পড়েছে ডোকলামের কাছে টানেল তৈরি করছে চীনের সেনাবাহিনী। এই টানেল ৫০০ মিটার দীর্ঘ। শীতের সময় সেনারা যাতে আশ্রয় নিতে পারে সেই জন্যই এই টানেল তৈরি করা হচ্ছে বলে প্রাথমিক অনুমান।

কৌশলগত বিষয় বিশেষজ্ঞ ব্রহ্ম চেল্লানি বলেন, চীন তার আঞ্চলিক দাবি জোরদার করতে কৌশলভাবে চীনা হ্যান ভাষা এবং কমিউনিস্টের তিব্বতি সদস্যদের ভারতীয় সীমান্তে ব্যবহার করছে। তিনি বলেন, এর আগে সাউথ চায়না সাগরে যেমন জেলেদের ব্যবহার করেছিল চীন। স্যাটেলাইট ইমেজে জানা যাচ্ছে চীন ও ভারতীয় বাহিনী যেখানে পঁচাত্তর দিন মুখোমুখি দাঁড়িয়ে ছিল তার থেকে ১০ কিলোমিটার দূরত্বে তৈরি হয়েছে এই গ্রাম।

প্রসঙ্গত, ভারত- চীন সম্পর্ক নিয়ে হস্তক্ষেপ করেছিল আন্তর্জাতিক মহল। আলোচনার মধ্য দিয়ে যাবতীয় সমস্যার সমাধানের চেষ্টা করা হচ্ছিল। কিন্তু তার মধ্যেই সুপরিকল্পিতভাবে চীনের এই নতুন কূটনৈতিক পদক্ষেপ দুই দেশের সম্পর্কে কী প্রভাব ফেলবে এখন তাই দেখার।এর আগে ভুটানের দুই কিলোমিটার ভিতরে গোপনে চীন গ্রাম তৈরি করেছে বলে দেশটির সরকারি মিডিয়ার একজন প্রবীণ সাংবাদিক সেই গ্রামের ছবিসহ টুইট করেন।