“তৃণমূলের ভ্যাকসিন বিজেপি, বাংলায় বদলও চাই, বদলাও চাই”, কুলপির সভা থেকে দিলীপ ঘোষের হুঙ্কার

বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি জেপি নাড্ডার কনভয়ে হামলাকে কেন্দ্র করে এখনও অব্যাহত রাজ্য সরকারের সাথে কেন্দ্রের বিবাদ৷ নাড্ডার কনভয়ে হামলার পর অভিযোগের আঙুল ওঠে শাসকদলের বিরুদ্ধেই৷ এই ঘটনা নিয়ে আবারও তৃণমূলকে তোপ দাগলেন বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ৷ বুধবার কুলপিতে একটি সভাতে দাঁড়িতে তিনি বিঁধলেন রাজ্য সরকারকে৷

এদিন তিনি বলেন,”আমাদের সভাপতির গাড়িতে হামলা হয়েছে৷ অনেকে আহত৷ ওই গাড়ি সারাতে যে খরচা হয়েছে,সব উসুল করবো৷” সরাসরি চ্যালেঞ্জ ছুঁড়ে দিয়ে বিজেপি নেতা বলেন তাদের বিনা কারণে মারলে ছেড়ে দেবেন না তারা৷ পাশাপাশি হুঙ্কার দেন,”বদলও হবে,বদলাও হবে৷” বুধবার কৃষিবিলের সমর্থনে দক্ষিণ ২৪ পরগণার কুলপি ব্লকের করঞ্জলির দামোদরপুরের আইটিআই মাঠে জনসভার আয়োজন করে বিজেপি৷ সেখানেই উপস্থিত ছিলেন দিলীপ ঘোষ৷ মঞ্চে দাঁড়িয়ে একহাত নেন তৃণমূলকে৷

তিনি বলেন কেন্দ্রের প্রকল্পগুলি রাজ্যে চালু করতে না দেওয়ার কারণ কাটমানি পাবে না তৃণমূল৷ সরাসরি ওই টাকা জনগণের কাছে পৌঁছালে কাটমানি নিতে পারবে না তৃণমূল৷ এদিন তাকে ২০২১—এ বাংলায় বিজেপি সরকার গড়বে বলেও আত্মবিশ্বাসী হতে দেখা যায়৷ দিলীপ ঘোষের তাই একটাই শ্লোগান—”বদল চাই,বদলাও চাই৷”এছাড়াও দিলীপবাবুর দাবী,”দেশে বিজেপির দেড় হাজারের বেশি এমএলএ রয়েছেন,চারশ এমপি আছেন,কারও বিরুদ্ধে চুরির অভিযোগ নেই,এটাই হল বিজেপি৷” অর্থাৎ নাম না করেই তৃণমূল নেতৃত্বকে কটাক্ষ করেন এদিন৷ তিনি আরও বলেন,”করোনার ভ্যাকসিন আবিষ্কৃত হয়নি,কিন্তু তৃণমূলের ভ্যাকসিন আবিষ্কার হয়েছে ভারতীয় জনতা পার্টি৷”

কুলপির সভামঞ্চ থেকে সোচ্চারে দিলীপ ঘোষ নজর দিতে চাইলেন আসন্ন বিধানসভা ভোটে৷ তার দাবী ২০২১ —এই দিদির সরকার শেষ৷ তৃণমূলকে সরিয়ে বাংলায় সরকার গড়বে ভারতীয় জনতা পার্টি,এমনটাই বিশ্বাস করেন তিনি৷ কুলপির সভার পর দিলীপ ঘোষ গাড়িতে কাকদ্বীপের লড ৮নং ঘাটের কাছে “চায়ে পে চর্চা” অনুষ্ঠানে যোগ দেন৷