বিধায়ক হয়েই ‘অতিমারী মোকাবিলায়’ ময়দানে অদিতি মুন্সী, চালু করলেন ‘কোভিড সেফ হোম’

হাইভোল্টেজ একুশের বিধানসভা নির্বাচনের (West Bengal Assembly Election 2021) আগে তৃণমূলে যোগ দিয়েছিলেন। রাজারহাট-গোপালপুরের মতো গুরুত্বপূর্ণ কেন্দ্রে দলনেত্রী ভরসা রেখেছিলেন অদিতি মুন্সীর (Aditi Munshi) উপর। বিফলে যায়নি। প্রথমবারের নির্বাচনী পরিক্ষার্থী বিপুল ভোটে জয়ী হয়েছেন।

তবে বিধায়ক হয়েও আবেগে ভেসে যাননি। বরং এই কঠিন পরিস্থিতিতে কীভাবে সাধারণ মানুষের পাশে দাঁড়ানো যায়, সেই চেষ্টা করছেন। অতিমারী মোকাবিলাতেও বেজায় তৎপর রাজারহাট-গোপালপুরের নব নির্বাচিত বিধায়ক। এবার নিজের বিধানসভা এলাকায় চালু করলেন কোভিড সেফ হোম (Covid Safe Home)।

অদিতি তাঁর এই অভিনব উদ্যোগে পাশে পেয়েছেন স্বামী দেবরাজ চক্রবর্তীকে। যিনি কিনা দীর্ঘ কয়েক বছর থেকেই রাজনীতির সঙ্গে জড়িত। বিধায়ক অদিতির উদ্যোগে এই কোভিড সেফ হোমের উদ্বোধন করেন সৌগত রায় (Sougata Roy)। পরিদর্শনে এসেছিলেন মন্ত্রী চন্দ্রিমা ভট্টাচার্যও (Chandrima Bhattacharya)।

প্রসঙ্গত, গত বৃহস্পতিবার বিধানসভায় শপথ গ্রহণের পরই অদিতি বলেছিলেন, আবেগে ভেসে না গিয়ে নিজের দায়িত্ব পালনের চেষ্টা করবেন। কীভাবে অতিমারী মোকাবিলা করা যায় কিংবা নিজের কেন্দ্রের মানুষদের যথাযথ চিকিৎসা পরিষেবা দেওয়া যায়, সেদিকে নজর দেবেন।

প্রতিশ্রুতি মতো কাজও শুরু করে দিয়েছেন তৃণমূলের বিধায়ক গায়িকা। তাঁর কেন্দ্রের ওয়ার্ডে ওয়ার্ডে ভোটের দেওয়াল লিখন মুছে সেখানে কোভিড সচেতনার নানা পাঠ তুলে ধরেছেন। স্যানিটাইজেশনের কাজও চলছে নানা এলাকায়।

রাজারহাট-গোপালপুর (Rajarhat-Gopalpur) বিধানসভা কেন্দ্রের অন্তর্গত বাগুইহাটি অঞ্চলের দেওয়াল জুড়ে এখন শুধুই কোভিড সচেতনতার বার্তা। রাজ্যে তৃতীয়বারের জন্যে মুখ্যমন্ত্রী পদে বসেই মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ও (Mamata Banerjee) জানিয়ে দিয়েছিলেন যে করোনা মোকাবিলা করাই হবে সরকারের প্রথম কাজ।

সাধারণ মানুষের পাশে থেকে কোভিডের সঙ্গে লড়াই করতে হবে। তৃণমূল সুপ্রিমোর সেই নির্দেশ-ই যেন বাধ্য ছাত্রীর মতো অক্ষরে অক্ষরে পালন করে চলেছেন তৃণমূলের (TMC) তারকা বিধায়ক অদিতি মুন্সী।

সূত্র