দীঘায় ঘূর্ণিঝড় ‘ইয়াস’ এর কবলে কলকাতা টিভির সাংবাদিক! মর্মান্তিক অভিজ্ঞতা! জলের তোড়ে ভেসে গেল চ্যানেলের গাড়ি, ভাইরাল ভিডিও

গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভ বলে মনে করা হয় জার্নালিজম বা সাংবাদিকতাকে। বিভিন্ন ক্ষেত্রে আমরা দেখতে পাই সাংবাদিকরা প্রাণ হাতে করে বিভিন্ন খবর সংগ্রহে নেমে পড়েন। মানুষের কাছে খবর পৌঁছে দেওয়ার জন্য তাদের সহায়তা করেন ক্যামেরার পিছন থেকে ক্যামেরাম্যান সহ অন্যান্যরা।

কিন্তু অনেক ক্ষেত্রেই সাংবাদিকদের জীবন বাজি রেখে কাজ করতে হয়। তেমনি আজকে ঘূর্ণিঝড় ইয়াসের খবর সংগ্রহের জন্য দীঘায় গিয়ে ছিলেন কলকাতা টিভির সিনিয়র সাংবাদিক সুচন্দ্রিমা পাল। তার সঙ্গে উপস্থিত ছিলেন ক্যামেরাম্যান এবং গাড়ির ড্রাইভার চন্দু।

একেবারে গ্রাউন্ড জিরো থেকে খবর সংগ্রহ করতে গিয়ে এরপরই ঘটে বিপর্যয়। সমুদ্রের তীব্র জলোচ্ছ্বাসে ভেসে যায় কলকাতা টিভির গাড়ি। কোনরকমে প্রাণে বাঁচেন গাড়ির ড্রাইভার সহ অন্যান্যরা।

নিরাপদ স্থানে পৌঁছানোর পর সুচন্দ্রিমা ফেসবুক লাইভ এর মাধ্যমে গোটা ঘটনাটি সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করেন। তিনি জানান গাড়ি ভেসে যাচ্ছে দেখেও তার গাড়ির ড্রাইভার গাড়ী ছেড়ে আসতে চায়নি। তাকে কোনরকমে জোর করে নিয়ে আসা হয় নিরাপদ জায়গায়।

পাশাপাশি তিনি গাড়ি থেকে মোবাইল এবং অন্যান্য গুরুত্বপূর্ণ জিনিস আছে যে ব্যাগে সেই ব্যাগটি কোনরকমে নামাতে গেলে তার চোখের সামনেই উল্টে যায় গাড়িটি, তারপরে তীব্র স্রোতে ভেসে যায় সেটি।

সোশ্যাল মিডিয়ায় ঘটনাটি তিনি শেয়ার করার পরই শোরগোল পড়ে যায় নেটিজেনদের মধ্যে। অনেকেই দাবি করেন সাংবাদিকদেরও জীবনের দাম আছে। তাই তাদের নিরাপত্তা সুরক্ষিত করে তবেই এরকম বিপদজনক কাজে তাদেরকে পাঠানো উচিত।

অত্যন্ত কাছ থেকে মৃত্যুকে দেখার পর আপাতত সুচন্দ্রিমা সহ অন্যান্যরা বেশ অসহায় বোধ করছেন।তবে তার মধ্যেও দেখা যায় নিজেদের কাজকে অবহেলা না করে একটু ধাতস্থ হয়েই আবার কাজে নেমে পড়েছেন তারা।