ভাইরাল

রিম্পির রান্নার স্পেশাল মশলা দেখে, ‘লোকাল মিয়া খালিফা’, ‘পিসি সরকারের নাতনি’, বলে কটাক্ষ সিনেবাপের! রিম্পি-পর্ণাকে মারাত্মক রোস্ট করল সিনেবাপ

সবেমাত্র বয়েস পাঁচ মাস। এরইমধ্যে রিম্পি এবং পর্নার ইউটিউব চ্যানেলের ভিউজ এবং সাবস্ক্রাইব সংখ্যা দেখে সকলেরই চক্ষু ছানাবড়া। মাত্র পাঁচটা ভিডিও, আর তাতেই বাজিমাত। এমন অনেক ইউটিউবার আছেন যারা দিন-রাত খেটেও জনপ্রিয়তা অর্জন করতে পারেন না।

কিন্তু এরা রান্না করার নাম করে গ্যাসে আগুন না জ্বালিয়েই আজ লক্ষ লক্ষ মানুষের দরবারে চলে গেছেন। তার নেপথ্যে রয়েছে শরীর দেখানোর মত সস্তার পাবলিসিটি তা নতুন করে উল্লেখ করার কারণ রাখেনা।

রিম্পির ইউনিক ফুড ভিলেজ চ্যানেলে রেসিপি হিসেবে রয়েছে টমেটোর চাটনি, বেগুনের ভর্তা, আলু পোস্ত ইত্যাদি। আগুন ছাড়াই বেশ রান্না করেন তিনি। এর জন্য বহু বড় ইউটিউবার থেকে শুরু করে ছোটখাটো রোস্টাররাও তাদের দুজনকে নিয়ে ইতিমধ্যেই রোস্টিং ভিডিও বানিয়ে ফেলেছেন।

এবারেই রিম্পি এবং পর্ণা কে নিয়ে ভিডিও বানালেন জনপ্রিয় ইউটিউবার সিনেবাপ অর্থাৎ মৃন্ময় দাস। তিনি দুজনকে ‘লোকাল মিয়া খলিফা’ বলেও দাগিয়ে দিয়েছেন।

পাঁচটা ভিডিওতে সাবস্ক্রাইবার ১ লক্ষ্য ছুঁই ছুঁই এবং চ্যানেলের মোট ভিউজ ৫০ লক্ষ্য। অনেকের মনেই প্রশ্ন আসছিল যে ভিডিও তে এমন কি আছে যাতে ভিউজ এবং সাবস্ক্রাইবার পাঁচ মাসেই লক্ষাধিক! এর সাফাইয়ে সিনেবাপের বক্তব্য, ‘অনেকের মনেই প্রশ্ন জাগছিল ভিডিয়োগুলোর মধ্যে এমন কী রয়েছে যার জোরে এত কম সময়ে এত পরিমাণে ভিউ হচ্ছে? উত্তর হচ্ছে, কিছু নেই। না রয়েছে গ্যাসের চুল্লিতে আগুন। না রয়েছে স্টেপ বাই স্টেপ রান্নার পদ্ধতি বলা। না রয়েছে অঙ্গে পর্যাপ্ত পরিমাণে বস্ত্র। না রয়েছে বাংলায় ঠারকি দর্শকের অভাব’।

মৃন্ময় দাস এর কথায়,‘এগুলো হল কুকিংয়ের নামে বিকিনি শ্যুটিং’। রসিকতার ছলে মৃন্ময় বলেছেন,‘দেখুন ম্যাজিক! পিসি সরকারের নাতনি রান্না করছেন ভাবছেন?’এরপর বেশ আক্রমণাত্মক ভঙ্গিতে বলেছেন,’উনি আসলে যৌবনের আগুনে রান্না করছেন। রেগুলেটর ঘুরিয়ে আমরা আগুনের আঁচ বাড়াই কিংবা কমাই। এখানে সেই কাজ করছে তাঁর শাড়ির আঁচল।’

তবে এখানেই শেষ নয় তিনি সবাইকে উপদেশ দিয়েছেন কিভাবে কম সময়ের মধ্যে জনপ্রিয় ইউটিউবার হয়ে ওঠা যায়। দেখিয়েছেন স্টেপ বাই স্টেপ সেই পথ। তিনি বলেছেন,‘ভিডিয়োর এমন থাম্বনিল দিতে হবে যার সঙ্গে কনটেন্টের কোনও মিল নেই, বা ওই বিকিনি পরে আলু পোস্ত রান্না করতে হবে।’

Back to top button