ভাইরাল

নিজের রূপের আগুনে মা মহিমা চৌধুরী কেউ ছাপিয়ে গেলেন আরিয়ানা চৌধুরী, সামনে এল জনপ্রিয় বলিউড অভিনেত্রী মহিমা চৌধুরীর কন্যা

৯০ দশকের জনপ্রিয় অভিনেত্রী দের মধ্যে অন্যতম একজন হলেন মহিমা চৌধুরী। ১৯৯৭সালে ‘পরদেশ’ ছবির মাধ্যমে তিনি ডেবিউ করেন। এই ছবিতে শাহরুখ খানের বিপরীতে অভিনয় করেছিলেন তিনি। সেই সময়ে এই ছবি দারুণভাবে হিট হয়েছিল বক্সঅফিসে। আজও ২৪ বছর পরেও এই ছবি দারুণভাবে জনপ্রিয় সকলের কাছে। এই ছবির মাধ্যমেই বলিউডে মহিমা চৌধুরী নিজের ক্যারিয়ার গড়তে শুরু করেছিল।

১৯৯৭ সালের পর থেকে বলিউডে পরপর বিভিন্ন ছবিতে অভিনয় করার সুযোগ আসে মহিমার কাছে। তবে অভিনয় জগতে তার সফল দুটি সিনেমা হল ‘ধারকান’ এবং ‘পরদেশ’। এই দুটি ছবি তাকে জনপ্রিয়তার শীর্ষে পৌঁছে দিয়েছিল। ৯০ দশকে বলিউডের সুন্দরী অভিনেত্রী দের তালিকার প্রথম সারিতে ছিলেন মহিমা চৌধুরী। সকল দর্শকই তার রূপের জাদুতে মুগ্ধ হয়েছিলেন। আর বর্তমানে মহিমা চৌধুরীর মেয়ে আরিয়ানা চৌধুরীও সোশ্যাল মিডিয়াতে নিজের রূপের জন্য নতুন সেনসেশন হয়ে উঠেছে।

মহিমা চৌধুরীর মেয়ে আরিয়ানা চৌধুরী যেন নিজের মাকেও ছাপিয়ে গিয়েছেন নিজের রূপে। সোশ্যাল মিডিয়ায় দারুন একটিভ আরিয়ানা। ইনস্টাগ্রামে মাঝেমধ্যে নিজের বিভিন্ন ছবি পোস্ট করেন তিনি। আরিয়ানা বর্তমানে সুন্দরী তরুণী তে পরিণত হয়েছে, সে এখন আর ছোট নেই। নেটিজেনদের ধারণা মায়ের মত আরিয়ানাও হয়তো ভবিষ্যতে বলিউড ইন্ডাস্ট্রিতে পা রাখতে চলেছেন। বলিউডের সুন্দরী অভিনেত্রী দের তুলনায় কোনো অংশে কম সুন্দরী নন আরিয়ানা।

বলিউডের সাফল্য অর্জন করার পর ববি মুখোপাধ্যায় কে বিয়ে করেছিলেন মহিমা চৌধুরী। কিন্তু তাদের বিয়ে মাত্র ৭ বছর ছিল। তারপর থেকেই ছোট্ট আরিয়ানকে নিয়ে আলাদা হয়ে যান মহিমা এবং একাই নিজের সন্তানকে মানুষ করেছেন তিনি। মেয়েকে সঠিকভাবে মানুষ করতে বহু বছর নিজেকে এবং আরিয়ানা কে ইন্ডাস্ট্রি থেকে এবং ক্যামেরার লাইম লাইট থেকে দূরে রেখেছেন মহিমা। নেটিজেনরা অনেকেই বলেন মহিমা চৌধুরীর মেয়েকে একেবারে পুতুলের মতো দেখতে। বলিউডের সুন্দরী অভিনেত্রী দের তুলনায় কোন অংশেই কম নয় আরিয়ানা।

সোশ্যাল মিডিয়ায় চোখ রাখলে আরিয়ানা এর বিভিন্ন ছবি দেখা যায়। মায়ের থেকে সুন্দরী তো বটেই, আধুনিকতার দিক দিয়েও মায়ের চেয়ে অনেক অংশে এগিয়ে রয়েছে আরিয়ানা।

Back to top button