Storyটলিউড

বলিউডের অভিনেতা অনুপম খেরের ষড়যন্ত্রের শিকার হয়েই জাতীয় পুরস্কার এর সম্মান থেকে বঞ্চিত থেকে গিয়েছিলেন প্রয়াত অভিনেত্রী রীতা কয়রাল

৮০ এবং ৯০ দশকের বাংলা সিনেমা জগতের খলনায়িকা চরিত্রে অভিনেত্রী রীতা কয়রাল ছিলেন প্রথম সারিতে। উত্তম কুমারের পরবর্তী প্রজন্মে যে সমস্ত ছবিগুলি বক্সঅফিসে মুক্তি পেয়েছিল তার প্রায় বেশিরভাগ ছবিতে খলনায়িকার চরিত্রে অভিনয় করেছিলেন রিতা এবং তার অভিনয় এতটাই অসাধারণ এবং নিখুঁত ছিল যে দর্শকেরা এক সময় তাকে সহ্য করতে পারতেন না। এই থেকেই তো অভিনেতা-অভিনেত্রীদের ভালো পারফরমেন্সের পরিচয় পাওয়া যায়। আজ এত বছর পরেও তার অভিনীত কোন ছবির সামনে আসলে দর্শকেরা তাকে মিস করেন।

তবে শুধুমাত্র খলনায়িকা নয় পরবর্তীকালে মায়ের চরিত্রে অভিনয় করেছেন তিনি। যেখানে তিনি দর্শকদের চোখের জল এনে দিয়েছিলেন। এমন একজন প্রতিভাবান অভিনেত্রীর জাতীয় পুরস্কার এর সম্মান পাওয়ার কথা। কিন্তু সেই সৌভাগ্য আর হয়নি তাও আবার বলিউডের একজন বিশিষ্ট অভিনেতা ষড়যন্ত্রে। মৃত্যুর আগে অব্দি আক্ষেপ তার মনে এই একটি আক্ষেপ রয়ে গিয়েছিল।

কিংবদন্তি পরিচালক ঋতুপর্ণ ঘোষের ‘বাড়িওয়ালা’ নামক চলচ্চিত্রে অভিনয় করেছিলেন বলিউডের অভিনেতা কিরণ খের। এই ছবিতে কিরনের কন্ঠের ডাবিং করেছিলেন অভিনেত্রী রীতা কয়রাল। ছবিটি পরে জাতীয় পুরস্কার দ্বারা সম্মানিত হয়েছিল এমনকি ছবিতে অভিনীত অভিনেতা অভিনেত্রী এবং নানা কলাকৌশলীরা পুরস্কার প্রাপ্ত হয়েছিলেন জানা গিয়েছিল কিরণ খের এর পাশাপাশি নাকি অভিনেত্রী রীতা কয়রালেরও জাতীয় পুরস্কারের সম্মান পাওয়ার কথা ছিল।

তবে সেই সম্মান কোনদিনই পাননি অভিনেত্রী জাতীয় পুরস্কার এর নিয়ম অনুযায়ী কোন কন্ঠে ডাবিং করার সময় সেকি লিখিতভাবে জানাতে হয় যেটি কিরণ খের এর স্বামী অনুপম খের কোনদিনই করতে দেননি। যদিও পরে জাতীয় পুরস্কার দেওয়ার সময় রীতা কয়রাল এবং কিরণ খের দুজনের নামই না হয় কিন্তু অনুপম খের কিছুতেই রীতা কয়রাল কে সামনে আসতে দেননি তিনি ফোন করে রিতা কে বলেছিলেন তিনি যত অর্থ লাগে রিতাকে দেবেন কিন্তু বদলে ডাবিংয়ের শিল্পী হিসেবে রিতাকে নিজেকে সরিয়ে নিতে হবে।

অনুপম খেরের টাকার লোভে এসেও এই ধরনের প্রস্তাব নাকচ করে দেন রীতা কয়রাল। তখন অনুপম খের রীতা কয়রাল কে রীতিমত হুমকি দেন দেখে নেওয়ার। পরে অবশ্য ঋতুপর্ণ ঘোষ নিজেই ডাবিংয়ের কথা স্বীকার করেছিলেন। ততদিনে কিরণ খের জাতীয় পুরস্কার অর্জন করে নিয়েছিলেন তবে রীতা কয়রাল সেই সম্মান থেকে বঞ্চিত হয়ে গিয়েছিলেন।

পরে শাশ্বত চট্টোপাধ্যায় সঞ্চালিত জি বাংলার একটি রিয়েলিটি শো তে এসে রীতা কয়রাল নিজেই সকলের সামনে এই ঘটনা তুলে ধরেন। বারবার হয়ে আসা এই নেপোটিজম এর শিকার হয়েছেন একাধিক অভিনেতা অভিনেত্রীরা।

Back to top button