Storyবলিউড

সস্তার কামাই করতে বিয়েতে নাচেন শাহরুখ খান! ১৬ বছর শাহরুখ ও সানির বন্ধ ছিল মুখ দেখা দেখি! বিবাদে জড়িয়েছিলেন এই দুই অভিনেতা

বলিউড ইন্ডাস্ট্রি মানেই এক বিশাল গ্ল্যামার জগৎ। এই ইন্ডাস্ট্রিতে টিকে থাকার জন্য প্রতিদিন প্রতিনিয়ত করতে হয় টিকে থাকার লড়াই। এই ইন্ড্রাস্ট্রির অন্যতম জনপ্রিয় প্রথম সারির দুই অভিনেতা হলেন শাহরুখ খান ও সানি দেওল। তবে এই দুই অভিনেতার মধ্যে সম্পর্ক মোটেই ভালো নয়।

তাদের সম্পর্কে রয়েছে প্রচুর তিক্ততা। এই দুই অভিনেতা একে অপরের সঙ্গে একাধিকবার বিতর্কে জড়িয়েছেন। সম্প্রতি এমনই একটি ঘটে যাওয়া ঘটনা সামনে এলো সকলের। বলিউডের মধ্যে এমন অনেক ঘটনাই ঘটে যা সাধারণ মানুষের পক্ষে জানা সম্ভব হয় না। তবে মাঝে মাঝে কিছু কিছু ঘটনা সামনে চলে আসে সকলের।

সানি দেওল ও শাহরুখ খানের মধ্যে বিবাদের ঘটনা অজানা নয় কারোরই। তবে জানা গিয়েছে, পরিচালক যশ চোপড়ার বক্সঅফিস হিট ছবি ‘ডর’-এ অভিনয় করার সময়ে বিতর্কে জড়িয়ে পড়েছিলেন বলিউডের এই দুই প্রথম সারির অভিনেতা। তাদের এই বিতর্ক নিয়ে মিডিয়াতে সমালোচনা হয়েছিল প্রচুর।

সেই সময় শাহরুখ খান ছিলেন ইন্ডাস্ট্রিতে নবাগত। আর সানি দেওয়াল ততদিনে বলিউডের ‘অ্যাংরি ইয়াং ম্যান’ হয়ে উঠেছেন। তার অভিনীত প্রতিটি চরিত্র এবং তার ডায়ালগ নজর কেড়েছিল সকল দর্শকদের। সেই সময় তার অনুরাগীর সংখ্যা বাড়ছিল দিন দিন। সেই সময় বিতর্কে জড়িয়ে পড়ায় মিডিয়াতে সমালোচনা হয়েছিল প্রচুর।

সিনেমার চরিত্রের মতই সানি দেওয়াল বাস্তব জীবনেও এমনই একজন রগচটা মানুষ। থেকে থেকেই তিনি এমন ধরনের মন্তব্য করে বসতেন যার জন্য তিনি বিতর্কে জড়িয়ে পড়তেন বারংবার। একবার তিনি বলে বসেছিলেন, “বিয়েতে নাচুনীরাই নাচ করেন, কোনো অভিনেতা সেই কাজটা করেন না।

আমার মনে হয় অভিনেতাদের এই সমস্ত জিনিস থেকে নিজেদের দূরে রাখা উচিৎ। তাছাড়া এটা এক ধরনের সস্তার কামাই।” অভিনেতার এমন মন্তব্য রীতিমতো সমালোচনার ঝড় তুলেছিল গোটা ইন্ডাস্ট্রিতে। এমন মন্তব্য প্রকাশ্যে তার করা উচিৎ হয়নি বলেই জানিয়েছিলেন অনেকে।

এমনকি এও শোনা যায়, বিতর্কে জড়ানোর পর তিনি একসময় বলিউড ইন্ডাস্ট্রি থেকে নিজেকে কিছুটা দূরে দূরে রাখতেন। এমনকি পরবর্তীকালে দীর্ঘ ১৬ বছর এই দুই অভিনেতার মুখ দেখাদেখিও বন্ধ ছিল। সত্যিই এই দুই প্রথম সারির অভিনেতার একসময় মুখ দেখাদেখি বন্ধ ছিল কিনা সেই নিয়ে কোনো সঠিক তথ্য মেলেনি। তবে এমনটা হয়েছিল বলেই জানা গেছে।

Back to top button