বিদেশিনীর প্রেমে পড়েছিলেন রতন টাটা! কিন্তু বিয়ে করতে পারলেন না! আজও চিরকুমার হয়েই থেকে গেলেন

রতন টাটার নাম আমরা সবাই শুনেছি। তিনি ভারতের অন্যতম সফল শিল্পপতি। সাধারণ মানুষের কাছে রতন টাটা নামটাই যথেষ্ট তার আলাদা করে পরিচয় দেওয়ার দরকার হয় না।

বর্তমানে এই শিল্পপতির বয়স ৮৩ বছর। কিন্তু আজও অনেক মানুষের কাছে এটা অজানা যে তিনি এখনো অবিবাহিত। কেন জানেন? সেই কথাই জানবো আজ।

১৯৩৭ সালে তিনি জন্মগ্রহণ করেন গুজরাটের, সুরাটে। অন্যান্য আর বাকি সাধারণ বাচ্চাদের মতোই তার ছোটবেলাটা কেটেছে। কিন্তু তার দশ বছর বয়সে তার বাবা-মায়ের ছাড়াছাড়ি হয়ে যাওয়ার পর থেকেই রতন টাটা এবং তার ভাই তাদের ঠাকুমার কাছে মানুষ।

রতন টাটা তোর ঠাকুমার আদর্শেই বড় হয়েছেন। ঠাকুমার নীতিবোধকে আঁকড়ে ধরেই বড় হয়ে উঠেছে এই শিল্পপতি। শিল্পপতি আর্কিটেকচার নিয়ে স্নাতক হন। তার বাবা অবশ্য চেয়েছিলেন তিনি মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের কোন এক কলেজ থেকে ইঞ্জিনিয়ারিং নিয়ে পড়াশোনা করুন।

তবে ওই সময় রতন টাটার ঠাকুরমা তার পাশে থাকায় তিনি আর্কিটেকচার নিয়েই পড়াশোনা করেন। এরপর দু’বছর লস এঞ্জেলেসে কাজ করেছিলেন তিনি।

লস এঞ্জেলেসে কাজ করার সময় রতন টাটা প্রেমে পড়েছিলেন এক মার্কিন সুন্দরীর। তার কথায় তার জীবনের সবচাইতে সুন্দর সময় ছিল ওইটা।

তারা ঠিক করেন দুজন দুজনকে বিয়ে করবেন কিন্তু ওই মুহূর্তে শিল্পপতি রতন টাটার ঠাকুর মা অসুস্থ হয়ে যাওয়ায় তিনি দেশে ফিরে আসেন। তিনি দেশে ফেরার পরই তার প্রেমিকার আসার কথা ছিল ভারতে।

তারা ঠিক করেছিলেন তারা ভারতেই নিজেদের সংসার বাঁধবেন। তবে ওই সময় ভারত চীন যুদ্ধ বাধার ফলে রতন টাটার প্রেমিকার পরিবার তাকে আর ভারতে পাঠাতে রাজি হননি ফলে তাদের সম্পর্কের ইতি ঘটে ওই সময়ে। এরপর রতন টাটার কোনদিনই বিয়ে করেননি।