Story

৭০০০ টি গাড়ি, ৪৩ টি প্রাইভেট প্লেনের মালিক রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন, গোটা পৃথিবীর সবথেকে ধনী ব্যক্তি, বর্তমানে তিনি ৯৬৪১ বিলিয়ন টাকার সোনার মালিক

আমরা প্রত্যেকেই জানি সম্প্রতি রাশিয়া এবং ইউক্রেনের মধ্যে শুরু হয়ে গিয়েছে যুদ্ধ। বিশেষজ্ঞরা মনে করছেন এটি তৃতীয় বিশ্বযুদ্ধের রূপ ধারণ করতে পারে। ইতিমধ্যেই রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ইউক্রেন এর উপর হামলা করেছে। রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট হলেন ভ্লাদিমির পুতিন। সারা বিশ্বজুড়ে এখন একটাই খবর রাশিয়া এবং ইউক্রেনের যুদ্ধ।

পুতিন হলো এমন একজন মানুষ যিনি কোন ভাবনা চিন্তা না করেই সিদ্ধান্ত নিয়ে ফেলেন ইউক্রেনের পার্শ্ববর্তী দেশ গুলি অনেক বার করে আবেদন জানিয়েছিল তারা যুদ্ধ নয় শান্তি চাই কিন্তু সেই সমস্ত কি ভাবনা চিন্তা করেননি রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট। ৬৯ বয়সের পুতিন সমস্ত অনুরোধ কে উপেক্ষা করে ইউক্রেনে উপর নির্মম হামলা চালান। আসলেই এই শক্তির পিছনে রয়েছে অগাধ সম্পত্তি যা তাদের যুদ্ধ করার জন্য সাহস যোগাচ্ছে রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট পুতিন কে সবথেকে ধনী ব্যক্তিদের মধ্যে গণ্য করা হয়। তিনি বিশ্বের সবথেকে বড় ধনী ব্যক্তি মাঝেমধ্যে তিনি নিজের এই বিষয় সম্পত্তির কারনে চর্চার শিরোনামে উঠে আসেন।

এক প্রতিবেদনের দাবি অনুযায়ী পুতিনের কাছে বর্তমানে ৯৬৪১ বিলিয়ন টাকার সোনার মজুদ, বিলাসবহুল গাড়ি, প্রাইভেট জেট রয়েছে। পুতিন হলো রাশিয়া সব থেকে অগ্রিম সোনার ক্রেতা। রাশিয়াতে মস্কো, সেন্ট পিটার্সবার্গ এবং ইয়েকাতেরিনবার্গে বিশাল সোনার মজুদ রয়েছে। ফোর্বসের মতে, ১৯৯৫ সালে রাশিয়ায় সোনার মজুদ ছিল ১.৪ বিলিয়ন পাউন্ড অর্থাৎ ১৫২ বিলিয়ন রুপি। বর্তমানে পুতিনের কাছে সোনার মজুদ রয়েছে ৯৫ বিলিয়ন পাউন্ড অর্থাৎ ৯৬৪১ বিলিয়ন রুপি।

যদি এই তথ্যগুলো সঠিক হয়ে থাকে তাহলে বিশ্বের সবথেকে বড় ধনী ব্যক্তি হলেন পুতিন। রাজনৈতিক সমালোচক বরিস নেমতসভের মতে, পুতিনের কাছে একটি বিলাসবহুল প্রাইভেট জেট সহ ৪৩ টি বিমান, ৭,০০০ টি গাড়ি এবং ১৫টি হেলিকপ্টার রয়েছে। এছাড়াও পুতিনের ১০০ বিলিয়ন রুপি মূল্যের একটি গোয়েন্দা প্রাসাদ রয়েছে যা কৃষ্ণ সাগরের উপকূলে অবস্থিত।

Back to top button