Story

ছিল না স্কুলের ফিস দেওয়ার টাকা, ৫ টাকার বিনিময়ে করতেন শ্রমিকের কাজ, আজ গ্রেট খালি ১০০ কোটি টাকার মালিক

কষ্ট করলে কেষ্ট মেলে এই প্রবাদ বাক্য টা আমরা মধ্যবিত্ত পরিবারের সকলেই অনেক ছোট থেকে শুনে আসি। নিজের লক্ষ্যে পৌঁছতে গেলে সবসময় কঠোর পরিশ্রম এবং ইচ্ছাশক্তি থাকাটা খুবই প্রয়োজন। যদি কোন একটা মানুষ সারাজীবন আরাম বিলাসিতা মাধ্যমে কাজে সফলতা পেতে চান তাহলে কখনোই তার কাজে সফলতা আসে না। যেই মানুষটা কঠোর পরিশ্রম করে মাথার ঘাম পায়ে ফেলে অক্লান্ত পরিশ্রম করে চলছে দিনরাত সেই সাফল্যের চূড়ায় পৌঁছাতে পারে। আজ আপনাদেরকে এমন একজন ব্যক্তির কথা বলব তিনি নিজের অক্লান্ত পরিশ্রমের মাধ্যমে আজ সাফল্যের চূড়ায় দাঁড়িয়ে রয়েছেন।

তিনি হলেন সকলের পরিচিত ‘দ্য গ্রেট খালি’ ওরফে দিলীপ সিং রানা। বর্তমানে তার নাম শুধু দেশে নয় বিদেশেও কোনায় কোনায় ছড়িয়ে পড়েছে। তিনি WWE প্রতিযোগিতায় সারা বিশ্বে ভারতের নাম তুলে ধরেছেন। তাঁকে WWE থেকেই নাম দেওয়া হয়েছে দ্য গ্রেট খালি। তার জীবন কাহিনী নিয়ে একটি বইও লেখা রয়েছে বইটির নাম ‘The man who become khali’. দ্য গ্রেট খালি কে বহু রিয়্যালিটি শোতেও দেখা গিয়েছে।

তাকে নিয়ে লেখা বইটিতে লেখা রয়েছে তাঁর জীবনের সমস্ত ছোট বড় গল্প। একসময় অর্থাভাবের কারণে ঠিকমতো স্কুলের ফিস দেওয়ার টাকা ছিল না তার। এবং স্কুলের ফিস দিতে না পারার কারণে এক শিক্ষক তাকে দারুন অপমান করেছিলেন তারপর তিনি স্কুল ছেড়ে দেন, স্কুল ছেড়ে দেওয়ার পর আর কোনদিনও স্কুলের মুখ দেখেনি তিনি। এরপর নিজের বডি ফিটনেস এর উপর নজর দিতে শুরু করেন এবং ৫ টাকার বিনিময়ে শ্রমিকের কাজ করতে শুরু করেন।

১৯৯৭ সালে মিস্টার ইন্ডিয়ার খেতাব জিতে নিয়েছিলেন তিনি। এর পরের বছর অর্থাৎ ১৯৯৮ সালেও আরও একবার জিতে নিয়েছিলেন এই খেতাব। তার প্রতিভা দেখে প্রাক্তন রাষ্ট্রপতি এপিজে আবদুল কালাম স্যার তাকে রাষ্ট্রপতি ভবনে ডেকে পাঠিয়েছিলেন। জি দিলীপ সিং রানার কাছে স্কুলের ফিস জমা দেয়ার মত টাকা ছিলনা বর্তমানে তিনি ৯৬ কোটি টাকার মালিক।

Back to top button