Storyবলিউড

এক সময় লোকের টেবিলে খাবার সার্ভ করতেন, সেখান থেকে আজ হয়ে উঠেছেন বলিউডের অন্যতম জনপ্রিয় অভিনেত্রী! জানুন নোরা ফতেহির জীবনের অজানা গল্প

বর্তমান প্রজন্মের কাছে নোরা ফাতেহি নামটা বহুল পরিচিত। এখন বলিউডের আইটেম ডান্স মানেই নোরা ফাতেহির নাচ। বলিউডে আইটেম ডান্সের কথা উঠলেই সমস্ত পরিচালকদের কাছে প্রথম অপশন নোরা ফাতেহি। সোশ্যাল মিডিয়ার সেনসেশন নোরা। বর্তমানে তার জনপ্রিয়তাও নেহাত কম নয়। নোরা ফাতেহির নাম উঠলেই ‘দিলবার’, ‘ও সাকি সাকি রে’, ‘হায় গার্মি’, ‘কোকা কোলা’ ইত্যাদি গানে তার নাচের দৃশ্য চোখের সামনে ভাসে।

এখন নোরা ফাতেহির নাচে মুগ্ধ দর্শকসহ গোটা ইন্ডাস্ট্রি। আজকের দিনে দাঁড়িয়ে দেখলে নোরা ফাতেহি এই মুহূর্তে জনপ্রিয়তার শিখরে বসে রয়েছেন। তবে ছবিটা শুরু থেকেই এমন ছিলনা। তাকে সহ্য করতে হয়েছে অনেক অবহেলা। শুরুতে শুরুতে ঠিক করে হিন্দিটা পর্যন্ত বলতে পারতেন না অভিনেত্রী। তার হিন্দি কথা শুনে রীতিমত হাসাহাসি করতেন সকলে। কিন্তু আজ তিনি প্রতিষ্টিত বলিউড ইন্ডাস্ট্রিতে।

একসময় অভিনেত্রী নোরা ফাতেহি শুধুমাত্র টাকার প্রয়োজনে হোটেলে কাজ করতেন। এখানে তিনি টেবিলে টেবিলে খাবার দিতেন। এই কথা তিনি নিজের মুখেই স্বীকার করে নিয়েছেন। অভিনেত্রীর মতে কোন কাজই ছোট-বড় হয়না। তার কাছে যে কোনো কাজই সমান গুরুত্বপূর্ণ। অভিনেত্রী হওয়ার আগে তিনি অনেক ধরনেরই কাজ করেছেন।

নিজের কাজ প্রসঙ্গে একবার অভিনেত্রী জানিয়েছিলেন, “এই কাজের জন্য একজনের ভালো কমিউনিকেশন স্কিল থাকতে হবে, ভালো ব্যক্তিত্বের অধিকারী হতে হবে, দ্রুত নিজের কাজ করতে হবে, ভীষণ ভাল স্মৃতিশক্তি থাকা প্রয়োজন। অনেকসময়, খারাপ স্বভাবের গ্রাহকদের মুখোমুখি হওয়ার পরিস্থিতি তৈরি হতে পারে। তাই এক্ষেত্রে সবরকম পরিস্থিতি সামলে নেওয়ার ক্ষমতা থাকাও প্রয়োজন।”

নোরা জানান তিনি শুধুমাত্র উপার্জনের জন্য এই কাজ করতেন। এটা তার কাছে একটা উপায় ছিল অন্য কিছু করার পাশাপাশি অর্থ উপার্জন করা। এই প্রসঙ্গে তিনি জানিয়েছিলেন, “আসলে এটা আমাদের কানাডার প্রচলিত একটি সংস্কৃতি। ওখানে সবাই চাকরি করেন। সবাই, যেমন স্কুলে যান,তেমনি সকলে চাকরিও করেন।” তাহলে বোঝাই যাচ্ছে আজকের বলিউড ইন্ডাস্ট্রির নোরা ফাতেহি হয়ে উঠতে সময় লেগেছে অনেক। পরিশ্রম ও ডেডিকেশনের পাশাপাশি তার ভাগ্যও সাথ দিয়েছিল। আজ তিনি সবার প্রিয় নোরা।

Back to top button