রহস্যময় শহর কুলধারা তে বাস করে না কেউই! আজ অবধি কেউ গিয়ে সেখান থেকে জীবন্ত ফিরতে পারেনি, ভুতুড়ে শহর কুলধারা

মরুভূমির শহর রাজস্থান লোককথা এবং নানা প্রাচীন গল্প প্রবাদে ভরা। রাজস্থানের প্রতিটি শহরেরই আছে কিছু নিজস্ব গল্প। এমনই একটি শহর হল কুলধারা। রাজস্থানের বিখ্যাত দর্শনীয় স্থান জয়সালমীর থেকে বেশ কিছুটা ভিতরে অবস্থিত পরিত্যক্ত শহর কুলধারা।

এই শহরটি কেন পরিত্যক্ত তার পিছনে আছে এক প্রাচীন উপকথা। জানা যায় প্রায় ৩০০ বছর আগে শহরটি হয়ে উঠেছিল আশেপাশের বেশকিছু শহরের মধ্যে ব্যবসা-বাণিজ্য ইত্যাদি থেকে সেরা।

কিন্তু গ্রামীণ পরিষদের এক সদস্যের নজর পড়ে গ্রামপ্রধানের কন্যার দিকে। নিজের সম্মান বাঁচাতে শহর ত্যাগ করে গ্রাম প্রধান ও তার পরিবার। কিন্তু যাওয়ার আগে তারা অভিশাপ দিয়ে যায় যে কুলধারার মাটিতে তারা যেহেতু বাস করতে পারেনি তাই অন্য কেউও থাকতে পারবে না।

প্রচলিত এরপর থেকেই অভিশপ্ত হয়ে ওঠে কুলধারার মাটি। বর্তমানে গ্রামটি একেবারেই পরিত্যক্ত। প্রচলিত আছে মাঝেমধ্যেই নাকি সেখান থেকে শোনা যায় কান্নার আওয়াজ, কমে যায় আশেপাশের তাপমাত্রা। জিওলজিক্যাল সার্ভে অফ ইন্ডিয়ার তরফ থেকে ওখানে চালানো হয়েছিল নানা সমীক্ষা। কিন্তু তারাও কোনো সদুত্তর দিতে পারেননি।

প্রচলিত আছে অনেক টুরিস্টই নাকি দুঃসাহস দেখিয়ে গিয়েছিলেন কুলধারার ভেতরে থাকতে। কিন্তু রাত কাটিয়ে প্রাণ হাতে করে কেউই আর ফিরতে পারেননি বলে জানা যায়।

তাই রাজস্থানের টুরিস্ট গাইডরা সাধারণ ট্যুরিস্টদের শহর থেকে দূরে থাকতেই উপদেশ দেন। কারণ এখনো পর্যন্ত রাজস্থানের এমন অনেক জায়গায় অনেক ঘটনা আছে যা বৈজ্ঞানিক পদ্ধতিতে সদুত্তর দেওয়া সম্ভব হয়নি।