Story

ইংরেজি পড়াতে গিয়ে নিজের ছাত্রীকেই পাত্রী বানিয়ে ছিলেন মদন মিত্র! ছাত্রীকে বিয়ে করেই ৩০ বছরের সুখী দাম্পত্য কাটাচ্ছেন মদন মিত্র, ফাঁস করলেন স্ত্রী

‘দিদি নম্বর ১’ জি বাংলার অন্যতম জনপ্রিয় গেম রিয়্যালিটি শো। শুরুর দিন থেকে এখনো পর্যন্ত এই একই রকম জনপ্রিয়তা বজায় রেখে এগিয়ে চলেছে। এই শোয়েব অন্যতম কাণ্ডারী হলেন রচনা ব্যানার্জী। বলাই বাহুল্য, তাকে ছাড়া এই শো প্রাণহীন। মাঝে অভিনেত্রীর বাবা প্রয়াত হওয়ায় বেশ কয়েকদিন বিরতি নিয়েছিলেন অভিনেত্রী। মানসিকভাবে একেবারে ভেঙ্গে পড়েছিলেন তিনি। বর্তমানে মন শক্ত করে আবারো কাজে ফিরেছেন রচনা ব্যানার্জী। এখন ‘দিদি নম্বর ১’এ চলছে পিকনিক পর্ব। প্রতি পর্বেই থাকে নতুন চমক। সম্প্রতি এই রিয়্যালিটি শোয়ে নিজের স্ত্রীকে নিয়ে হাজির ছিলেন বর্তমানে সোশ্যাল মিডিয়ার রঙিন ব্যক্তিত্ব মদন মিত্র।

সোশ্যাল মিডিয়ার পাতায় চোখ রাখলেই মদন মিত্রকে নিয়ে কিছু না কিছু খবর সামনে আসেই। তিনি সদাসর্বদা রঙিন মানুষ। তোর যেকোন কথা, ভিডিও, ছবি নিমেষের মধ্যে ভাইরাল হয়। এদিন ‘দিদি নম্বর ১’এর মঞ্চে এসে তার স্ত্রী অর্চনা মিত্র মদন মিত্রের সমস্ত রহস্য ফাঁস করলেন।

মদন মিত্র অর্চনা দেবীর দিদির বন্ধু ছিলেন। তিনি অর্চনা দেবীকে ইংরেজি পড়াতে আসছেন। একই পাড়ায় পাশাপাশি বাড়িতে থাকতেন তারা। অনেক নিয়ম-শৃঙ্খলার মধ্যেই একে অপরের সাথে প্রেম করেছেন তারা, পরে বিয়ে। নিজের ছাত্রীকেই পাত্র বানিয়ে নিয়েছিলেন তিনি।

অর্চনা দেবীর কথায় মদন মিত্র নিজের এত গ্ল্যামার ধরে রেখেছেন কারণ তাকে বাড়ি থেকে কিছুই বলা হয়না। মদন মিত্র বাড়িতে কোন কাজ করেন না সেকথা তিনি নিজেই স্বীকার করে নিয়েছেন। তবে এতকিছুর মধ্যেও ৩০ বছরের দাম্পত্য টিকিয়ে রেখেছেন সুন্দরভাবে। এখনও স্ত্রীয়ের সাথে মনোমালিন্য হলে গান গেয়ে স্ত্রীয়ের রাগ ভাঙান তিনি। একথা শুনে সকলেই অবাক হয়ে গিয়েছিলেন। এমনকি এদিন গানও গেয়ে শুনিয়েছেন সকলকে। এদিন তার কথা শুনে রীতিমতো হেসে গড়িয়ে পড়েছিলেন উপস্থিত সকলেই।

বর্তমান পরিস্থিতিতে দাঁড়িয়ে রাজনৈতিক মহল হোক কিংবা সোশ্যাল মিডিয়া তাকে নিয়ে বিতর্কে শেষ নেই। প্রতিমুহূর্তে ট্রোল হচ্ছেন তিনি। কিন্তু সবকিছুর মধ্যেই নিজেকে একেবারে মেনটেন করে চলেছেন মদন মিত্র। এদিন জি বাংলার পর্দায় এই এপিসোড সম্প্রচারিত হওয়ার পরেই মদন মিত্রর এই দৃশ্যটি ভাইরাল হয়েছে সোশ্যাল মিডিয়ায়। আপনাদের জন্য রইল সেই ভিডিও।

Back to top button