দেবশ্রী রায় এর জীবন কাহিনী! ১১ বছর বয়েসে প্রথম ক্যামেরার সামনে, সেখান থেকে আজ ‘সর্বজয়া’

নব্বইয়ের দশকের বাংলা সিনেমার অন্যতম সেরা অভিনেত্রী দেবশ্রী রায় বহুদিন অভিনয় জগৎ থেকে বিরতি নেওয়ার পর অবশেষে জি বাংলা ধারাবাহিক ‘সর্বজয়া’ দিয়ে ফিরছেন ছোটপর্দায়।

সিরিয়ালটির প্রোমো রিলিজ হওয়ার পর থেকেই আলোচনার কেন্দ্রবিন্দু হয়ে উঠেছেন দেবশ্রী।সিরিয়ালটি সম্প্রচারের আগে তাই আরও একবার জেনে নিন দেবশ্রীর জীবনের নানা অজানা তথ্য।

১৯৬২ সালে জন্মগ্রহণ করেছিলেন দেবশ্রী। ছোট থেকেই নাচ অভিনয়ের প্রতি তার আকর্ষণ জন্মায়। প্রথমে মা, তারপর দিদি এবং তারপর বিখ্যাত নৃত্যশিল্পী কেলুচরণ মহাপাত্র এর কাছে নাচের শিক্ষা নিয়েছিলেন তিনি।

টলিউডে ডেবিউ এর পর থেকে এখনো পর্যন্ত দেড়শোর বেশি সিনেমায় অভিনয় করে ফেলেছেন দেবশ্রী। বাংলা সিনেমার পাশাপাশি বলিউডেও শ্রীদেবীর মতো তারকাদের পাশে দেখা গেছে তাকে।

তার অভিনয় দক্ষতার মত ব্যক্তিগত জীবন নিয়েও সমানভাবে চর্চিত হয়েছেন দেবশ্রী। হিন্দি ইন্ডাস্ট্রিতে কাজ করার সময় তার নাম জড়িয়েছিল তৎকালীন ক্রিকেটার সন্দীপ পাতিল এর সঙ্গে। বলা হয় সেসময় বিবাহিত সন্দীপের সঙ্গে ঘনিষ্ঠ সম্পর্কে জড়িয়ে পড়েছিলেন দেবশ্রী। যদিও নিজেকে পাতিলের শুধুমাত্র বন্ধু হলেই পরিচয় দিয়ে দেন দেবশ্রী।

এরপর টলিউডের সুপারস্টার বুম্বাদা ওরফে প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায় এর সঙ্গে ১৯৯২ সালে গাঁটছড়া বাঁধেন দেবশ্রী। কিন্তু মাত্র তিন বছরের মধ্যেই শেষ হয়ে যায় তাদের বৈবাহিক সম্পর্ক।

বর্তমানে দেবশ্রী রাজনৈতিক ক্যারিয়ার এর পাশাপাশি ‘নটরাজ’ নামের একটি নৃত্য দলের কর্ণধার। যদিও এবার তিনি রাজনৈতিক ক্যারিয়ার থেকে বিরতি নিচ্ছেন সর্বজয়া ধারাবাহিকে অভিনয় এর জন্য।