Story

কাঁধের চোটের কারণে খেলা থেকে প্রায় হারিয়ে যেতে বসেছিলেন নীরজ চোপড়া! সেখান থেকে ফিরে পেলেন অলিম্পিকে স্বর্ণপদক! জানুন ‘সোনার ছেলে’ নীরজের সম্পর্কে নানান অজানা তথ্য

টোকিও অলিম্পিকে জ্যাভলিনে প্রথম সোনা এনে দিয়ে হরিয়ানার সোনার ছেলে নীরজ চোপড়া ভেঙে দিয়েছেন একাধিক রেকর্ড। এর আগে পর্যন্ত ভারতের মোট সোনার পদক সংখ্যা ছিল নয়টি। দশম পদক এল নীরজের হাত ধরে। পাশাপাশি অভিনব বিন্দ্রার পর তিনিই দ্বিতীয় খেলোয়াড় যিনি ব্যক্তিগত বিভাগে স্বর্ণপদক লাভ করেছেন।

অনেকেই জানেন না নীরজ আসলে উঠে এসেছেন হরিয়ানার একটি কৃষক পরিবার থেকে। ১৯৯৭ সালের 24 শে ডিসেম্বর জন্মগ্রহণ করেছিলেন তিনি হরিয়ানার এক প্রত্যন্ত গ্রামে। কৈশোরে নীরজের ওজন বাড়তে থাকায় তাকে তার পরিবারের লোকেরা খেলাধুলোয় সঙ্গে পরিচিতি করিয়ে দেন। এরপর শিবাজী স্টেডিয়ামে নিয়মিত শরীরচর্চা করতে যেতেন তিনি।

প্রথমে ক্রিকেটের প্রতি আকর্ষিত হলেও এরপর ধীরে ধীরে জ্যাভলিনের প্রতি ভালোবাসা জন্মাতে থাকে তার। এরপর ২০১২ সালে অ্যাথলেটিক্স চ্যাম্পিয়নশিপে স্বর্ণপদক যেতেন নীরজ। এর চার বছর পর ২০১৬তে পোল্যান্ডে আবারও স্বর্ণপদক জয় লাভ করেন নীরজ। এই সাফল্যের পরেই ভারতীয় সেনাবাহিনীতে চাকরি পান তিনি।

এরপর চাকরির পাশাপাশি খেলাধুলায় আরো নিজেকে জড়িয়ে ফেলেন নীরজ। ২০১৮ সালে জাকার্তার এশিয়ান গেমসে আবারও স্বর্ণপদক পান নীরজ। পাশাপাশি কমনওয়েলথ গেমসেও দুর্দান্ত পারফরম্যান্স করেছিলেন তিনি।

কিন্তু এরপর কাঁধের চোটের জন্য খেলা থেকে প্রায় হারিয়ে যেতে বসেছিলেন ভারতের সোনার ছেলে। কিন্তু কঠোর পরিশ্রমের মাধ্যমে ফিরে এসে স্বপ্ন সত্যি করেছেন নীরজ চোপড়া।

Back to top button